সোনালী শহর সানফ্রানসিসকো, সিটি বাই দ্যা বে, পশ্চিমের প্যারিস, কুয়াশার শহর যে নামেই ডাকুন না কেন সানফ্রানসিসকো যেন বৈচিত্রের ভান্ডার। সাড়া বিশ্বের নানান প্রান্ত থেকে পর্যটকরা আসে এর আনন্দ নিতে। আসুন জেনে নিই কি কি আছে সানফ্রানসিসকোতে। আলকাট্রায আলকাট্রায শহরের বাইরে, এটি একটি দ্বীপ। মূল শহর থেকে এর দূরত্ব ১.৫ মাইল। এখানে কী আছে? কেন শুরুতেই পাঠিয়ে দিলাম খোদ শহরের বাইরে? এখানে আছে একটি কুখ্যাত জেলখানা। এই জেল থেকে পালাতে পারে নি কেউ কখনো। অবশ্য এখন এটি আর কাজে লাগে না। ১৯৬৩ সালে ববি কেনেডি এটি বন্ধ করে দেন। তবে আপনি এটি দেখতে যেতেই পারেন। শুধু আগে থেকে বুক করবেন, কারণ এত পর্যটক আসে এখানে স্লট দ্রুত পূর্ণ হয়ে যায়। টুইন পিকস চারপাশে চমৎকার প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে সানফ্রানসিসকো জুড়ি নেই। আর সেই উদ্দেশ্য পরিপূর্ণ করতে অবশ্যই যেতে হবে টুইন পিকসে। এটি আসলে ২ টি পাহাড়ের চূড়া। পাহাড়গুলো এত কাছাকাছি যে মনে হয় এরা জমজ। ৯২৫ ফুট উচ্চতা নিয়ে এর দাঁড়িয়ে আছ আকাশের বুক চিড়ে। সম্পূর্ণ সানফ্রানসিসকো, এর পাশে বয়ে চলা উপসাগর, শহরের দৃশ্যাবলী সব মিলিয়ে এই পয়েন্টটি একটি পরিপূর্ণ প্যাকেজ। দ্যা ক্যাস্ট্রো এটি গে কমিউনিটির প্রাণের জায়গা। আপনি একটি বেলা নিয়ে ঘুরে দেখতে পারেন পুরো জায়গাটি। GLBT এর ইতিহাস সমৃদ্ধ জায়গা এটি। আপনি দেখতে পারেন হারভে মিল্ক ওল্ড হাউজ, যে এখন মানবাধিকার ক্যাম্পাইনের জন্য খ্যাত। আর আপনি যদি জুন মাসে যান তাহলে মাউথ লং প্রাইডটি মিস করবেন না যেন! গোল্ডেন গেট পার্ক একজন লেখক লিখেছিলেন, গোল্ডেন পার্ক যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে চমৎকার এলাকা। আর এর কারণ হল আপনি আপনার সারাটা দিন এখানে কাটিয়ে দিতে পারবেন স্প্রলিং করে, দিন শেষ হয়ে যাবে কিন্তু করার জন্য কাজের অভাব হবে না। বেশিরভাগ দর্শণার্থী শুরু করেন ফুলের বৈচিত্র উপভোগের মাধ্যমে। এখানে গ্রীন হাউজে ২০০০ প্রজাতির উদ্ভিদ আছে। আপনি যদি বাচ্চাদের নিয়ে যান তাহলে তারা খুবই খুশী হবে Steinhart Aquarium দেখে। এছাড়া সবার জন্যই অপরূপ সব দৃশ্যে ভরা পার্কটি হাইকিং করা বা পিকনিক করার জন্য চমৎকার। গোল্ডেন গেট ব্রীজ এই বিখ্যাত ব্রীজটি দেখতে পারেন দুই ভাবে। স্থল ভাগ দিয়ে অথবা পানিপথে। ব্রীজটির অবিশ্বাস্য চমৎকার স্থাপত্য শৈলী এবং অনন্যতা সবাইকে এতই মুগ্ধ করে যে এটি এখন সানফ্রানসিসকোর প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটি দেখতে আসার সাথে এখানে দেখবেন অনেক ক্রুজ কোম্পানি আছে যারা উপসাগরটির প্যারানমিক দৃশ্য দেখিয়ে আনবে আপনাকে। ব্রীজটির সৌন্দর্য্য আরও পরিপূর্ণ রূপে উপভোগ করতে চাইলে ড্রাইভিং করুন অথবা বাইকিং অথবা পায়ে হেঁটে উপভোগ করুন।


সোনালী শহর সানফ্রানসিসকো, সিটি বাই দ্যা বে, পশ্চিমের প্যারিস, কুয়াশার শহর যে নামেই ডাকুন না কেন সানফ্রানসিসকো যেন বৈচিত্রের ভান্ডার। সাড়া বিশ্বের নানান প্রান্ত থেকে পর্যটকরা আসে এর আনন্দ নিতে। আসুন জেনে নিই কি কি আছে সানফ্রানসিসকোতে।


আলকাট্রায

আলকাট্রায শহরের বাইরে, এটি একটি দ্বীপ। মূল শহর থেকে এর দূরত্ব ১.৫ মাইল। এখানে কী আছে? কেন শুরুতেই পাঠিয়ে দিলাম খোদ শহরের বাইরে? এখানে আছে একটি কুখ্যাত জেলখানা। এই জেল থেকে পালাতে পারে নি কেউ কখনো। অবশ্য এখন এটি আর কাজে লাগে না। ১৯৬৩ সালে ববি কেনেডি এটি বন্ধ করে দেন। তবে আপনি এটি দেখতে যেতেই পারেন। শুধু আগে থেকে বুক করবেন, কারণ এত পর্যটক আসে এখানে স্লট দ্রুত পূর্ণ হয়ে যায়।




টুইন পিকস

চারপাশে চমৎকার প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে সানফ্রানসিসকো জুড়ি নেই। আর সেই উদ্দেশ্য পরিপূর্ণ করতে অবশ্যই যেতে হবে টুইন পিকসে। এটি আসলে ২ টি পাহাড়ের চূড়া। পাহাড়গুলো এত কাছাকাছি যে মনে হয় এরা জমজ। ৯২৫ ফুট উচ্চতা নিয়ে এর দাঁড়িয়ে আছ আকাশের বুক চিড়ে। সম্পূর্ণ সানফ্রানসিসকো, এর পাশে বয়ে চলা উপসাগর, শহরের দৃশ্যাবলী সব মিলিয়ে এই পয়েন্টটি একটি পরিপূর্ণ প্যাকেজ।

দ্যা ক্যাস্ট্রো

এটি গে কমিউনিটির প্রাণের জায়গা। আপনি একটি বেলা নিয়ে ঘুরে দেখতে পারেন পুরো জায়গাটি। GLBT এর ইতিহাস সমৃদ্ধ জায়গা এটি। আপনি দেখতে পারেন হারভে মিল্ক ওল্ড হাউজ, যে এখন মানবাধিকার ক্যাম্পাইনের জন্য খ্যাত। আর আপনি যদি জুন মাসে যান তাহলে মাউথ লং প্রাইডটি মিস করবেন না যেন!

গোল্ডেন গেট পার্ক

  একজন লেখক লিখেছিলেন, গোল্ডেন পার্ক যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে চমৎকার এলাকা। আর এর কারণ হল আপনি আপনার সারাটা দিন এখানে কাটিয়ে দিতে পারবেন স্প্রলিং করে, দিন শেষ হয়ে যাবে কিন্তু করার জন্য কাজের অভাব হবে না। বেশিরভাগ দর্শণার্থী শুরু করেন ফুলের বৈচিত্র উপভোগের মাধ্যমে। এখানে গ্রীন হাউজে ২০০০ প্রজাতির উদ্ভিদ আছে। আপনি যদি বাচ্চাদের নিয়ে যান তাহলে তারা খুবই খুশী হবে Steinhart Aquarium দেখে। এছাড়া সবার জন্যই অপরূপ সব দৃশ্যে ভরা পার্কটি হাইকিং করা বা পিকনিক করার জন্য চমৎকার।


গোল্ডেন গেট ব্রীজ

এই বিখ্যাত ব্রীজটি দেখতে পারেন দুই ভাবে। স্থল ভাগ দিয়ে অথবা পানিপথে। ব্রীজটির অবিশ্বাস্য চমৎকার স্থাপত্য শৈলী এবং অনন্যতা সবাইকে এতই মুগ্ধ করে যে এটি এখন সানফ্রানসিসকোর প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটি দেখতে আসার সাথে এখানে দেখবেন অনেক ক্রুজ কোম্পানি আছে যারা উপসাগরটির প্যারানমিক দৃশ্য দেখিয়ে আনবে আপনাকে। ব্রীজটির সৌন্দর্য্য আরও পরিপূর্ণ রূপে উপভোগ করতে চাইলে ড্রাইভিং করুন অথবা বাইকিং অথবা পায়ে হেঁটে উপভোগ করুন।

Post A Comment: