"যদি আমার বোলারদের নিয়ে তাদের উদ্বেগ থাকে, তবে তাদের (আইসিসি) কর্মকাণ্ড নিয়েও আমার যথেষ্ট উদ্বেগ আছে।" -চণ্ডিকা হাথুরুসিংহে


কথাগুলো বাংলাদেশ দলের কোচ হাথুরুসিংহের। কথাটি তিনি এমন এক প্রেক্ষাপটে বললেন, যখন টাইগার দলের মূল একাদশের দু'জন বোলারের দিকে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের সন্দেহ ছুঁড়ে দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইসিসি)। একেবারে হঠাৎ বিনা মেঘে বজ্রপাত যেন। যারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জায়গা করে নিয়েছেন অনেক আগেই, ঠিক বিশ্বকাপ মঞ্চে তাদের অ্যাকশন নিয়েই প্রশ্ন!

যদি হাথুরুর কথাটি সাদামাটাভাবে দেখা হয়, তবে মনে হবে বিষয়টি নিয়ে এমন তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখানোর কি আছে! আবার ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটির সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের দিকে তাকালে টাইগার কোচের উদ্বেগের কারণটি খোলাসা হয়ে যায়। শর্ষের মধ্যে যখন ভূত থাকে তখন প্রশ্নের বিপরীতে প্রশ্ন তো উঠবেই।

এরপরই প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে, তাসকিন-সানি কি নেদারল্যান্ডসের ম্যাচেই প্রথম খেলতে নামলেন? আর দুই টাইগারের বোলিং প্রশ্নবিদ্ধ বলার জন্য এই ম্যাচের জন্যই কেন অপেক্ষায় থাকতে হলো আইসিসিকে? আইসিসিতে যে তিন মোড়লগিরি চলছে সেদিকে একটু ভালো করে তাকালেই এর উত্তর মিলবে। আর এখানেই কোচ হাথুরুসিংহের প্রতিক্রিয়াটি প্রাসঙ্গিকতা পায়।

হাথুরু যথার্থই বলেছেন- আইসিসির কর্মকাণ্ড নিয়ে তার যথেষ্ট উদ্বেগ আছে। কারণ কেবল তাসকিন বা সানি নন। একটু পেছনে তাকালে দেখা যায় অতীতে বড় টুর্নামেন্টে খেলতে এসে আইসিসির আতশকাঁচের নিচে পড়ার খড়গ নেমে এসেছিল অনেক নামীদামী বোলারেরই। যারা দীর্ঘ সময় মাঠ মাতিয়েছেন।

Post A Comment: