বাঘের সংখ্যা ক্রমাগত কমতে থাকা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলাদেশ বন বিভাগের প্রধান সংরক্ষক মো. ইউনুস আলী বলেছেন, সুন্দরবনে আমাদের জাতীয় পশু বাঘের সংখ্যা এখন মাত্র ১০৬টি। 

 

 

বুধবার বেলা ১১টায় রাজধানীর কারওয়ানবাজারে এলাকায় অবস্থিত একটি পত্রিকা অফিসের অডিটোরিয়ামে আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এ তথ্য জানান।

মো. ইউনুস আলী বলেন, বাঘ আমাদের গর্ব। বিশ্বজুড়ে বাঘের সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে। বিশ্বে মাত্র ৩ হাজার ২শ’টি বাঘ রয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশে আছে ১০৬টি। আমরা টাইগার অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়নে কাজ করছি। জনগণের উদ্দেশে আমি বলতে চাই, বাঘ আমাদের বনের প্রহরী, তাকে মারবেন না।

ইউএসএইড এর পক্ষ থেকে জানা যায়, বনভূমি ধ্বংস, অবৈধ বন্যপ্রাণী শিকার আরো নানাবিধ কারণে হিসাব মতে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা কমে ১০৬টিতে দাঁড়িয়েছে। এ বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরিতে "জাতীয় পর্যায়ে জনসচেতনতা কার্যক্রম" শুরু হয়েছে। এই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে টাইগার ক্যারাভ্যান নামক উচ্চ প্রযুক্তি সম্পন্ন একটি বাস বিভিন্ন স্থানে সুন্দরবন ও বাঘ বিষয়ক প্রদর্শনীতে অংশ নেবে।

বাঘ মানুষের দ্বন্দ্ব নিরসনে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বন বিভাগের খুলনা সার্কেলের বন সংরক্ষক জহির উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, বাঘ মানুষের দ্বন্দ্ব নতুন কিছু নয়। আর সেই দ্বন্দ্ব নিরসনে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করা হয়েছে। বাঘের হামলায় কোনো মানুষ নিহত হলে ১ লাখ টাকা ও আহত হলে ৫০ হাজার টাকা দেয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে আমরা প্রায় ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে বিতরণ করেছি।

Post A Comment: