ক্যামেরার হচ্ছে ফটো বা ছবি তোলার যন্ত্র। ‘ক্যামেরা’ শব্দটি লাটিন শব্দ camera obscura থেকে এসেছে এবং এর অর্থ অন্ধকার কক্ষ। ভেতরে কালো রঙ করা একটি আলোকনিরুদ্ধ বাক্সের এক দিকে ছোট্ট ছিদ্র করে বিপরীত দিকে বিশেষ ধরণর রাসায়নিক প্রলেপযুক্ত একটি পর্দা বসানো হয়। কোন বস্তু থেকে প্রতিফলিত আলোকরশ্মি ছিদ্রের মধ্যে দিয়ে পর্দার উপর পড়লে ছবি তৈরি হয়। এই নীতির উপর ভিত্তি করেই ক্যামেরা তৈরি।


প্রাচীন ক্যামেরা
  ক্যামেরা ১৮৪০ সালে আবিষ্কার হয়। অতি প্রাচীনকালের ক্যামেরাগুলোতে সিলভার কোটেড কপার প্লেট ব্যবহার করা হয়, যা একটি ছবিকে সম্পূর্ণ রূপ দিতে ব্যবহ্নত হয়।
মুভিতে ব্যবহ্নত প্রথম ক্যামেরা
  ১৮৮০ সালে ইস্টম্যান প্রথম ফিল্মের রোল এবং ক্যামেরা আবিষ্কার করে এর সফল ব্যবহার করেন। ১৮৯০ সালে এডিসন মুভি ক্যামেরা আবিষ্কার করেন।
ক্যামেরা
  অনেক বড় বড় বিল্ডিং,ব্যাংক,বীমা,অফিস আদালত এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার মধ্যে নিরাপত্তা ক্যামেরা থাকে সবকিছু একচোখে দেখার জন্য ।বিভিন্ন ধরণের সমস্যা যেমন চুরি,ডাকাতিসহ সন্ত্রাসি কর্মকান্ড প্রতিরোধে এটি ব্যবহার করা হয় ।
টেলিফটো লেন্স
ফটোগ্রাফার টেলিফটো লেন্স ব্যবহারের মাধ্যমে অনেক দূরের বস্তুকে খুব কাছে টেনে নিতে পারেন। ছোট ক্যামেরা গুলোতে জুম ফানশন থাকে যা বস্তুর দূরুত্বকে কমাতে সাহায্য করে। এ সকল ক্যামেরার একটি বিশেষ সুবিধা হলো এগুলো প্রতি মুহুর্তের মধ্যে দূরে এবং কাছের অনেক দূর্লভ মুহুর্ত গুলোকে নিমিশেই ক্যামেরা বন্ধি করতে পারে।
মুভি ক্যামেরা
ছবির উপরে সাদা কন্টেইনারের মত অধিকাংশ মুভি ক্যামেরা গুলোতে বড় ফিল্মের রিল ব্যবহ্নত হয়।

Post A Comment: