ব্যবহৃত টয়লেট পেপারসংবলিত ‘বোমা’ ফেলল উত্তর কোরিয়া



ব্যবহৃত টয়লেট পেপারসংবলিত ‘বোমা’ ফেলল উত্তর কোরিয়া

দক্ষিণ কোরিয়া আতঙ্কিত। উত্তর সীমান্ত থেকে আকাশে ধেয়ে আসছে কিছু। উত্তর কোরিয়া থেকে নিশ্চয়ই মিষ্টি আসবে না। এসেছে বেলুন। তবে এতে মনে হওয়ার কিছু নেই যে দুই কোরিয়ার সম্পর্ক ভালো হয়ে গেছে। উত্তর কোরিয়ার পাঠানো বেলুনে ছিল ব্যবহার করা টয়লেট পেপার, টিস্যু আর সিগারেটের খোসা।

দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, চলতি মাসেই এ কাণ্ড করেছে উত্তর কোরিয়া। এর আগে গত ৬ জানুয়ারি ভূ-গর্ভে পরমাণু পরীক্ষা চালায় পিয়ং ইয়ং।  

আকাশে ধেয়ে আসা বেলুন দেখে ভীত হয়ে পড়েছিল দক্ষিণ কোরিয়ার মানুষ। দক্ষিণ কোরিয়ার এক সেনা কর্মকর্তা বলেন, ‘আকাশ থেকে কিছু পড়তে দেখে আমরা ভেবেছিলাম উত্তর কোরিয়া রাসায়নিক কিছু পাঠিয়েছে যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। পরে দেখলাম এগুলোতে কিছু আজেবাজে জিনিসপত্র। আর আছে প্রচারপত্র।’

বেলুনে ব্যবহৃত টয়লেট পেপার আর অন্যান্য জিনিসের সঙ্গে প্রায় ১০ লাখ প্রচারপত্র পাঠিয়েছে উত্তর কোরিয়া। সেখানে উত্তরবিরোধী মনস্তাত্ত্বিক প্রচারণা বন্ধ করার আহ্বান জানানো হয়। ‘উত্তরবিরোধী’ শব্দটিই ব্যবহার করা হয়। যেখানে উত্তর বলতে নিজেদের দেশকেই বুঝিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার মানুষ।

দক্ষিণ কোরিয়ার এক সামরিক কর্মকতা জানিয়েছেন, ‘অসংখ্য সিগারেটের খোসা ছিল, টিস্যু ছিল আর ছিল ময়লা হয়ে যাওয়া জিনিসপত্র।’

এদিকে দক্ষিণ কোরিয়া সরকার প্রতিবেশীর এ কাণ্ডটিকে এক শব্দে ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছে, ‘অপরিপক্ব।’

Post A Comment: