অবশেষে তিন মাসের জন্য নিষিদ্ধ হলেন ইয়াসির শাহ।

অবশেষে তিন মাসের জন্য নিষিদ্ধ হলেন ইয়াসির শাহ।
অবশেষে তিন মাসের জন্য নিষিদ্ধ হলেন ইয়াসির শাহ।

নিষিদ্ধ ড্রাগস সেবনের অপরাধে তিন মাসের জন্য সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হলেন পাকিস্তানের লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহ। গত ডিসেম্বরে আইসিসির ডোপ টেস্টে তার রক্তে নিষিদ্ধ ঔষধের উপস্থিতি ধরা পড়ে। ২৭ মার্চের পর থেকে আবারও ক্রিকেট মাঠে নামতে পারবেন তিনি। ওই সময়ই তার নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হবে। 

নিষেধাজ্ঞার কারণে চলমান পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) খেলা থেকে ইয়াসির শাহকে দুরে ঠেলে দিল। শুধু তাই নয়, এশিয়া কাপ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকেও তাকে বঞ্চিত করলো। আগামী জুনের আগে সম্ভবত আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটই খেলা হবে না ইয়াসির শাহের। কারণ, আগামী জুনের আগে পাকিস্তানের আর কোন সিরিজ নেই। ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে তার।

গত ডিসেম্বরে আবুধাবিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই ওয়ানডে সিরিজ চলাকালে ডোপ টেস্টে পাজিটিভ হিসেবে ধরা পড়েন ইয়াসির। তখনই তাকে প্রাথমিকভাবে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। এবার আইসিসি তার টেস্ট রিপোর্ট পুরোপুরি পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করলো। এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হচ্ছে গত ডিসেম্বর থেকেই।

Post A Comment: