খুব শীগগিরই রুমটুরুম ভিডিও চ্যাটিং- এর প্রযুক্তি নিয়ে আসছে মাইক্রোসফট!

 প্রচলিত ভিডিও চ্যাটিংয়ের অভিজ্ঞতা ভবিষ্যতে পাল্টে দিতে পারে সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটের পরীক্ষাধীন নতুন প্রকল্প রুমটুরুম (Room2 Room)। প্রতিষ্ঠানটির পরীক্ষাধীন নতুন ওই অগমেন্টেড রিয়ালিটি প্রযুক্তিতে যার সঙ্গে চ্যাট করা হচ্ছে, তার হলোগ্রাফিক প্রতিচ্ছবি দেখা সম্ভব হবে ঘরের মধ্যেই। ইতোমধ্যে ওই প্রযুক্তি নিয়ে হাতে কলমে পরীক্ষাও চালিয়েছে মাইক্রোসফট।


খুব শীগগিরই রুমটুরুম ভিডিও চ্যাটিং- এর প্রযুক্তি নিয়ে আসছে মাইক্রোসফট!
খুব শীগগিরই রুমটুরুম ভিডিও চ্যাটিং- এর প্রযুক্তি নিয়ে আসছে মাইক্রোসফট!

পরীক্ষাধীন ‘রুমটুরুম’ প্রযুক্তি ভিডিও চ্যাটের সময় অংশগ্রহনকারী দুজনের হলোগ্রাফিক প্রতিচ্ছবির মাধ্যমে মুখোমুখি বসে আলোচনার অভিজ্ঞতা দিতে পারবে। হাতে কলমের পরীক্ষার জন্য ১৪ জন সাধারণ ব্যবহারকারীকে নতুন ওই প্রযুক্তিতে ভিডিও চ্যাট করতে বসিয়েছিল মাইক্রোসফট।
অংশগ্রহনকারী প্রত্যেকেই একা ভিন্ন ভিন্ন কক্ষে বসে ওই ভিডিও চ্যাটে অংশ নিয়েছিলেন। হলোগ্রাফিক প্রতিচ্ছবি তৈরি করতে মাইক্রোসফট ‘কাইনেক্ট’ ডেপথ ক্যামেরা ব্যবহার করেছিল এবং ডিজিটাল প্রজেক্টরের মাধ্যমে পরে হলোগ্রাফিকের থ্রিডি প্রতিচ্ছবি তৈরি করছিল।
পরীক্ষার অংশ হিসেবে অংশগ্রহণকারীদের গবেষকরা যে কাজটি করতে বলেছিলেন, সেটিও অনেকটা ভিন্নধর্মী বলেই জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট টেকটাইমস। পরীক্ষায় যার প্রতিচ্ছবি দেখানো হচ্ছিল, তার নির্দেশনা মেনে ব্লক দিয়ে থ্রিডি কাঠামো বানাতে বলা হয়েছিল দ্বিতীয় ব্যক্তিকে। এই পরীক্ষায় দেখা গেছে প্রতিচ্ছবির নির্দেশনা মেনে ব্লক দিয়ে থ্রিডি কাঠামো বানাতে ওই ব্যক্তির সময় লেগেছে ৭ মিনিট। অন্যদিকে স্কাইপ ভিডিও চ্যাটের মাধ্যমে ওই কাজ করতে একই অংশগ্রহণকারীর সময় লেগেছে ৯ মিনিট।
মাইক্রোসফট গবেষকরা নতুন ওই ভিডিও চ্যাট প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণার ফলাফল নিয়ে হাজির হবেন ফেব্রুয়ারি মাসের ‘কনজিউমার সাপোর্টেড কোঅপারেটিভ ওয়ার্ক অ্যান্ড সোশাল কম্পিউটার’ সম্মেলনে। যুক্তরাষ্ট্রের স্যান ফ্রান্সিসকোতে অনুষ্ঠিত হবে ওই সম্মেলন।

Post A Comment: