প্রাক্তন ননদকে ফেসবুকে একটি পোস্ট ট্যাগ করেছিলেন মার্কিন এক নারী। তার পরিণাম কী জানেন? এক বছরের হাজতবাস হয়েছে নিউ ইয়র্কবাসী ওই নারীর। এমন ঘটনায় চাঞ্চল্যও ছড়িয়েছে। নেটিজেনরাও ভাবতে শুরু করে দিয়েছেন কতটা সতর্ক হয়ে এবার পা ফেলতে হবে সোশাল সাইটে।

 



তবে, সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে গোটা ঘটনাটি একটু অন্য ধরনের। মারিয়া গঞ্জালেজ নামে ওই মহিলার সঙ্গে তাঁর স্বামীর বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে গেছে। এরপর থেকেই আদালতের নির্দেশ অনুসারে প্রাক্তন পরিবারের কোনো সদস্যের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা বারণ মারিয়ার। তা সত্ত্বেও তিনি ওই পোস্ট ট্যাগ করায় তাঁকে জেলে পাঠানো হয়েছে আদালতের নির্দেশে।

নিজের ননদ মারিবেলকে একটি স্টেটাস লিখে ট্যাগ করেন মারিয়া। তাতে তিনি লেখেন, 'আমি জানি তুমি আর তোমার পরিবার খুব দুঃখিত। তোমাদের আরও শক্ত হতে হবে।' এ ছাড়াও তাঁকে 'বোকা' আখ্যাও দেন মারিয়া।

যদিও আদালতে নিজের লেখার সপক্ষে মারিয়া বলেন, আমি ওদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে পারব না ঠিক আছে। কিন্তু, ফেসবুকের মাধ্যমেও সম্পর্ক রাখতে পারব না তা তো বলা হয়নি। যদিও আদালতের পক্ষ থেকে তাঁকে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়, সম্পর্কটা কোনো ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসের মাধ্যমেও রাখা যাবে না। 

সূত্রঃ ইন্টারনেট

Post A Comment: