ফেসবুক বন্ধুদের অধিকাংশই সত্যিকার বন্ধু নন


ফেসবুক বন্ধুদের অধিকাংশই সত্যিকার বন্ধু নন

নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে, ফেসবুকের অধিকাংশ বন্ধুরা আপনার সম্পর্কে তেমন চিন্তা করেন না। তা ছাড়া এদের অনেকেই ভুয়া আইডি'র মাধ্যমে আপনার বন্ধু বনে গেছেন।

গবেষণায় বলা হয়, অসংখ্য মানুষ আছেন যাদের বন্ধু সংখ্যা হাজার হাজার। এদের মধ্যে খুব বেশি ৪ জনের ওপর নির্ভর করতে পারেন আপনি।

অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির এভোলেশনারি সাইকোলজি বিভাগের প্রফেসর রবিন ডানবার জানান, ফেসবুকে মানুষের বন্ধুতালিকায় কয় জন আসল বন্ধু এবং কত জন ভুয়া, তা দেখাই উদ্দেশ্য ছিল। সোশাল মিডিয়ার বন্ধু এবং তাদের ওপর নির্ভরতার বিষয়টি অনুধাবন করা হয় গবেষণায়। আসলে এ দুয়ের মধ্যে তেমন কোনো সংযোগ পাওয়া যায়নি।

দেখা গেছে, গড়ে ফেসবুকে মানুষের ১৫০ জন বন্ধু রয়েছে। ব্যবহারকারীর কোনো সমস্যা বা দুঃখজনক ঘটনায় এদের মধ্যে গড়ে ১৪ জন সমবেদনা প্রকাশ করেন। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা জানান, যার যার বন্ধুতালিকার ২৭ শতাংশ তাদের সত্যিকার বন্ধু।

এ সংখ্যা বাস্তবতার সঙ্গে খাপ খায়। সাধারণত বাস্তবিক জীবনে কাছের বন্ধুরা এভাবেই বন্ধুদের জীবনে অবদান রাখেন। তবে ফেসবুকে শত শত বন্ধু থাকার অর্থ হলো, সেখানে নতুন নতুন চিন্তার আগমন ও প্রয়োগ ঘটবে এবং অপরিচিত বন্ধুদের কাছে যাওয়ার সুযোগ মিলতে পারে।

গবেষকরা জানান, ফেসবুকে বিপুল পরিমাণ বন্ধু থাকা এবং তাদের সঙ্গে সোশাল প্লাটফর্মে গতানুগতিক উপায়ে যোগাযোগ রাখার বিষয়টি এড়াতে পারে না মস্তিষ্ক। বাস্তবজীবনে এ বিষয়গুলো প্রভাববিস্তার করতে পারে। কিন্তু মানুষের সঙ্গে মানুষের বন্ধুত্বের সম্পর্ক বলতে অন্তত বিশেষ উপলক্ষে মুখোমুখি হওয়া ও আলাপচারিতা বোঝায়।

ফেসবুকের বন্ধুরা কয়েক স্তরে ভাগ হয়ে যায়। গবেষণায় বলা হয়, মোটামুটি ৫ জন বন্ধু সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পান। এর পরের ১৫, ৫০ বা ১৫০ জন বন্ধুদের সঙ্গে এক ধরনের দূরত্ব সৃষ্টি হয়। ব্যবহারকারী এদের ভাগ করে নেন নিজের অজান্তে।

Post A Comment: