ভাপেই তৈরি করুন সুস্বাদু পুলি পিঠা

ভাপেই তৈরি করুন সুস্বাদু পুলি পিঠা
ভাপেই তৈরি করুন সুস্বাদু পুলি পিঠা
শীতের দিনগুলোতে মা-চাচীমার হাতের তৈরি পিঠা-পায়েশের জন্য মন কেমন করে নিশ্চয়ই। সেই ছেলেবেলা, খেজুর রসের ম ম ঘ্রাণ আর ধোয়া ওঠা মজাদার সব পিঠার কথা মনে পড়ে স্মৃতিকাতর হয়ে যান হয়তো। কিন্তু যান্ত্রিকতার এই শহরে সেসবের দেখা পাওয়া মুশকিল। নিজেই যদি পরিবারের জন্য বা প্রিয় মানুষটির জন্য মজার সব পিঠা তৈরি করে চমকে দেন, তবে কেমন হয়! রেসিপি জানা নেই? আজ থাকলো পুলি পিঠা তৈরির রেসিপি-

উপকরণ:
পুরের জন্য: নারকেল কুড়ানো - ২ কাপ, খেজুরের গুড় - ১ কাপ, চালের গুড়া - ২ টেবিল চামচ (হালকা টেলে নেয়া), এলাচি গুড়া - ১/২ চা চামচ।

ডো এর জন্য: চালের গুঁড়া (আতপ চাল) -৩ কাপ, ময়দা - ১ কাপ, পানি - ৩ কাপ, সয়াবিন তেল - ১ টেবিল চামচ, লবণ - পরিমানমতো।

প্রণালি: নারকেল কোড়ানো, খেজুরের গুঁড়, টেলে নেয়া চালের গুঁড়া, এলাচি গুড়া এই সব উপকরণগুলো একসাথে জ্বাল দিতে হবে। আঠালো হয়ে এলে নামিয়ে ফেলতে হবে। একটি হাড়িতে পানি নিয়ে তাতে অল্প লবণ ও তেল দিয়ে ফোটাতে হবে। ফুটে উঠলে চালের গুঁড়া ও আধা কাপ ময়দা দিয়ে নাড়তে হবে। ভালো ভাবে নেড়ে মিশে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে একটু ঠাণ্ডা করে, ডো বানাতে হবে। যদি কিছুটা নরম থাকে ময়দা মিশিয়ে ঠিক করতে হবে। অনেকক্ষণ মথে একটা মসৃণ ডো বানাতে হবে। এবার ছোট ছোট গোল চ্যাপ্টা রুটির মত করে মাঝে নারকেলের তৈরি করা মিশ্রণ কিছুটা দিয়ে দুই মাথা বন্ধ করে দিতে হবে। হাতে বানাতে না পারলে পিঠার ছাঁচেও বানাতে পারেন। এবার স্টিমারে ৩০ মিনিট বা পিঠা না হওয়া পর্যন্ত স্টিম করতে হবে। স্টিমার না থাকলে হাঁড়িতে পানি দিয়ে তার উপর ছিদ্র করা পাতিল রেখে পিঠা সেদ্ধ করতে দিন। সেদ্ধ হয়ে গেলে একটি চালুনিতে রেখে বাতাসে ছড়িয়ে দিন।

Post A Comment: