আত্মহত্যা করতেই গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু, ভাগ্যের কি খেয়াল! উল্টো তার কারণে আরেক ব্যক্তি প্রাণ হারাতে হারাতেও বেঁচে গেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বৃটেনে। প্রায় মধ্যরাতের দিকে লন্ডন ব্রিজের ওপর থেকে টেমস নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করার সময় নিজের অজান্তেই তিনি আরেকজনের প্রাণ বাঁচিয়েছেন। চরম হতাশাগ্রস্ত ওই ব্যক্তি আত্মহত্যার হুমকি দিলে, কর্তৃপক্ষ তড়িৎ ব্যবস্থা গ্রহণ করে। পুলিশ ও লাইফবোটের ক্রুরা যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছান, তখন তারা বিস্ময়ে হতবাক হয়ে যান। টেমস নদীতেই অপর এক ব্যক্তি ভেসে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করছিলেন। দাতব্য সংগঠন ‘দ্য রয়াল ন্যাশনাল লাইফবোট ইনস্টিটিউশন’র (আরএনএলআই) ক্রুরা ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করেন। ঠাণ্ডা পানিতে শরীরের তাপমাত্রা অস্বাভাবিকভাবে কমে হাইপোথার্মিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। এ সময় আশপাশে কোন বোট ছিল না বা অন্য কেউ ঘটনাটি খেয়াল করেননি। ওই মুহুর্তে পুলিশ সেখানে উপস্থিত না হলে বাঁচানো সম্ভব হতো না। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা আইএএনএস। নদী থেকে উদ্ধার করা ৩৩ বছর বয়সী ওই তরুণ ভীষণ বিচলিত ও কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থায় ছিলেন এবং বয়স ছাড়া তিনি ব্যক্তিগত কোন তথ্য দিতে পারেননি। এমনকি কিভাবে তিনি নদীতে পড়ে গেলেন, সে ব্যাপারেও কিছু বলতে পারেননি তিনি। হাইপোথার্মিয়ার কারণে এমনটা হয়ে থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এক কর্মকর্তা। এদিকে লন্ডন ব্রিজ থেকে লাফিয়ে টেমস নদীতে পড়ে যিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করছিলেন, তাকেও বুঝিয়ে উদ্ধারে সক্ষম হয় পুলিশ। এরপর তাকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়। তার পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

Post A Comment: