Decrease font Enlarge font
আমাদের প্রায় সবারই প্রিয় পানীয় কফি। সকালে,বিকেলে বা সন্ধ্যায় এক মগ গরম কফি ‍আমাদের আধাঘণ্টা সময় রঙিন করার জন্য যথেষ্ট। যার রেশ থাকে সারা দিন জুড়েই।

মুহূর্তেই সতেজ করা এই পানীয় আমাদের শরীরের অনেক বড় বন্ধুও তা কি আমরা জানি? অনেকেই হয়তো জানি। যারা জানি না আসুন জেনে নেই স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য রক্ষায় কফির ভূমিকা:

ক্যান্সার বিরোধী
কফি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়ায় জরায়ু, স্তন, কোলন ও লিভার ক্যান্সারের বিরুদ্ধে শক্তিশালী প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

ওজন কমাতে
ক্যাফেইন আমাদের হজম শক্তি বৃদ্ধি করে এবং অতিরিক্ত চর্বি বার্ন করতে সাহায্য করে। ব্ল্যাক কফিতে খুব কম ক্যালোরি রয়েছে, এজন্য নিয়মিত চিনি, কফিমেট বা ক্রিম না দিয়ে এক মগ ব্ল্যাক কফি পান করলে দ্রুত ওজন করবে।

হৃদরোগ প্রতিরোধ
হৃদযন্ত্রের প্রদাহ কমায় ও হৃদরোগ প্রতিরোধ করে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়।  

ডায়াবেটিস এড়াতে
বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত কফি পান করেন, তাদের রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং টাইপ-২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও কম থাকে।

ক্ষুধা হ্রাস
কফি পানে আমাদের খাবার গ্রহণের আগ্রহ কমিয়ে দেয় ও দীর্ঘ সময় কর্মশক্তি দিয়ে ক্লান্তি দূর করে। এজন্য আমরা যখন ওজন কমাতে ডায়েট করি তখন কফি পান করার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

চোখের জন্যও ভালো
কফি পানে আমাদের দৃষ্টিশক্তির উন্নতি হয় এবং অন্ধত্ব প্রতিরোধ করে। 

মাইগ্রেন
২-৩ কাপ ব্ল্যাক কফি পান করলে মাইগ্রেন ব্যথা দ্রুত কমতে সাহায্য করে।

কফির সৌন্দর্য উপকারিতাও কম নয়:

কফির মাস্ক তৈরি করে ব্যবহারে চোখের চার পাশের ডার্ক সার্কেল দূর করে। ত্বকের বলিরেখা দূর করে ত্বক রাখে স্বাস্থ্যজ্জ্বল। 

কফিতে থাকা প্রাকৃতিক ভিটামিন ও অ্যাসিড ত্বকের মৃত কোষ দূর করে মসৃণ এবং পরিষ্কার করে, ফলে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

পরিমাণ মতো কফি, চিনি এবং জলপাই তেল নিয়ে মাক্স তৈরি করে মাত্র পাঁচ মিনিট ধীরে ধীরে মাসাজ করুন এর পর পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

চুল পড়া রোধ করে, চুল ঘন ও মসৃণ করে। নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে। চুলের রং হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন কফি। কফি পানিতে গুলে আধাঘণ্টা চুলে মেখে রাখুন, এবার শ্যাম্পু করুন। ঠিক তেমনটাই হবে, চুলের যে শাইন আপনি চান। 

মানসিক চাপ কমিয়ে আমাদের চাঙ্গা রাখে কফি। এতো গুণের যে পানীয় তা থেকে দূরে থাকা যায়!

Post A Comment: