কাগজ অনলাইন ডেস্ক: অবশেষে চিকিৎসকরা তার শরীর থেকে বের করে আনলেন সেই জিনিসটা, যা ধীরে ধীরে বিষিয়ে দিচ্ছিল তার শরীরটাকে! ৬ ক্যারেটের প্রায় ২ কোটি টাকা দামের ওই হীরা অস্ত্রোপচারে বের করে আনার পরই জেলে যেতে হয় ৩৯ বছরের জিয়ান জুলিয়ানকে! থাইল্যান্ড পুলিশ জানাচ্ছে, অনেক মূল্যের অলঙ্কারের এক মেলা থেকে ওই হীরাটা চুরি করে নিজের দেশে ফিরে যাচ্ছিলেন জুলিয়ান। বিমানবন্দরে যাতে জিনিসপত্র তল্লাশি করার সময় হীরাটা খুঁজে পাওয়া না যায়, সে জন্য সেটা গিলে ফেলেছিলেন চীনের এই বাসিন্দা। কিন্তু ব্যাঙ্ককের সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরের এক্স-রে তল্লাশিতে ধরা পড়ে গেল তার অন্ত্রে হীরার মতো বড়সড় কোনো রত্ন আছে! তারপরই জুলিয়ানকে জেরা করে পুলিশ জানতে পারে ওই হীরা চুরির নেপথ্য অদ্ভুত কাহিনী। ব্যাঙ্ককের এক অলঙ্কার মেলায় জুলিয়ানের নজর পড়ে ওই হীরাটায়! তখনই তিনি ঠিক করে ফেলেন, ওটাকে চুরি করতে হবে। বুদ্ধি খাটিয়ে হীরা চুরির চমৎকার এক ফন্দিও আঁটেন তিনি। একেবারে ওই রকম দেখতে একটা নকল হীরা নিয়ে মেলায় যান জুলিয়ান। স্টলে গিয়ে হীরাটা দেখতে চান। তারপর সামান্য হাতসাফাই এবং জুলিয়ানের হাতে চলে আসে পছন্দের হীরাটি। তবে এসব করেও শেষ রক্ষা হলো না তার। বিমানবন্দরের এক্স-রে তল্লাশি ভেস্তে দিল সব পরিকল্পনা। আপাতত জুলিয়ানের সাধের হীরা ফিরে গেছে তার মালিকের কাছে। আর জুলিয়ানের কপালে জুটলো তিন বছরের হাজতবাস।

Post A Comment: