Decrease font Enlarge font
মনে আছে, ছোটবেলায় শীতের দিনে সকালে আমরা উঠানে মাদুর পেতে পড়তে বসতাম। তখন প্রতিটি সকালই ছিল উৎসবের। কারণ প্রায় প্রতিদিনই দাদু খেজুরগুরের মজার মজার পিঠা তৈরি করতেন। সকালের নাস্তা হতো পিঠা দিয়ে। আর বাড়িতে অতিথি এলেও তৈরি হতো নানা রকম পিঠা। এখন আর কেউ পিঠা তৈরির ঝামেলা করতে চাই না। আমাদের খুব পিঠা খেতে ইচ্ছে হলে ছুটে যাই পিঠার দোকানে।  কিন্তু আমরা যদি একটু কষ্ট করে ঘরে পিঠা তৈরি করি, তবে তার আনন্দ কিন্ত অনেক বেশি।

কীভাবে করবেন, জেনে নিন:
নকশি পিঠা
উপকরণ: চালের গুঁড়া ৪ কাপ, পানি তিন কাপ, লবণ সামান্য, ঘি ১ টেবিল চামচ, ভাজার জন্য তেল ৫০০ গ্রাম।
সিরার জন্য: গুড় ১ কাপ, চিনি ১ কাপ, পানি ২ কাপ জ্বাল দিয়ে সিরা বানাতে হবে।
প্রণালী: পানিতে লবণ ও ঘি দিয়ে চুলায় দিন। ফুটে উঠলে চালের গুঁড়া দিয়ে সেদ্ধ করে কাই বানাতে হবে।
আধা ইঞ্চি পুরু করে রুটি বানিয়ে পছন্দমতো আকার দিয়ে কেটে নিন। খেজুর কাঁটা দিয়ে রুটিতে পছন্দমতো নকশা করুন। এবার প্রথমে ডুবোতেলে ভেজে নিন। কিছুক্ষণ পর আবার তেলে ভেজে সিরায় দিয়ে ১ মিনিট রেখে তুলে নিন। ঠাণ্ডা হলে পরিবেশন করুন।

ভাপা পিঠা
উপকরণ: চালের গুঁড়া ৪ কাপ, নারকেল কুড়ানো ১ কাপ, গুড় গ্রেট করা ১ কাপ, লবণ পরিমাণমত, হালকা গরম পানি  আধা কাপ, পাতলা সুতি কাপড়।
প্রণালী: চালের গুঁড়া কুসুম গরম পানি ও লবণ দিয়ে মেখে চেলে নিন। ছোট বাটিতে প্রথমে চালের গুঁড়া তারপর গুড় এবং নারকেল দিন সব শেষে চালের গুঁড়া দিয়ে পাতলা কাপড়ে ঢেকে চুলায় রাখা পাতিলে রাখুন। ভাপে তিন মিনিট সেদ্ধ করে নামিয়ে নিন। গরম গরম পরিবেশন করুন।

দুধ ভেজানো চিতই
পিঠার উপকরণ: আতপ চাল ৪ কাপ, পনি পরিমাণ মতো, লবণ সামান্য।
প্রণালী: চাল ৪ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে ব্লেন্ড করে নিন। পরিমাণ মতো হালকা গরম পানি ও লবণ দিয়ে গোলা তৈরি করে নিন।
এবার লোহার অথবা মাটির পিঠার তৈরির পাত্র চুলায় দিয়ে ১ চামচ গোলা দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ৩-৪ মিনিট পর ঢাকনা খুলে পিঠা তুলে নিন। এভাবে সবগুলো পিঠা তৈরি করুন।
সিরা তৈরির উপকরণ: খেজুরের গুড় ২ কাপ, দুধ ৪ লিটার, দারচিনি ২ টুকরা, এলাচ ২টি, পানি ৪ কাপ।
যেভাবে করবেন: খেজুরের গুড় পানি দিয়ে জ্বাল দিন। এলাচ, দারচিনি দিয়ে ফুটে উঠলে নামিয়ে গরম পিঠা গুড়ের সিরায় ছাড়ুন।
এবার ৪ লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে ২ লিটার করে গুড়ের রসের ঢেলে দিন। ৬ থেকে ৮ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখার পর পিঠা পরিবেশন করুন।

দুধ পুলি
উপকরণ: চালের গুঁড়া ৪ কাপ, নারকেল ১ কাপ, দুধ ৪ কাপ, চিনি ৩ কাপ, এলাচ কয়েকটি, পানি ২ কাপ।

প্রণালী: পানি ফুটে উঠলে  চালের গুঁড়া দিয়ে শক্ত ডো তৈরি করুন। ছোট ছোট রুটি বেলে ভিতরে নারকেল দিয়ে ছোট পুলি তৈরি করে নিন। এবার চুলায় দুধ জ্বাল করে তাতে চিনি ও এলাচ দিন তারপর পুলি দিয়ে তুলে নামিয়ে নিন। ঠাণ্ডা হলে পরিবেশন করুন।

কুলী পিঠা
উপাদান :

চালের গুঁড়া ৫০০ গ্রাম, লবণ স্বাদমতো।
পুরের জন্য :
কোরানো নারকেল ২ কাপ, খেজুড় গুড়

প্রণালী:
অল্প আঁচে খেজুড় গুড় ও নারকেল ভেজে পুর তৈরি করে নিন।
চালের গুঁড়ায় হালকা গরম পানি ও লবণ দিয়ে ভাল করে মেখে খামির তৈরি করুন।
এরপর খামির থেকে ছোট ছোট লেচি কেটে নিয়ে হাতের তালুতে চেপে চেপে বাটি তৈরি করুন।
বাটির মধ্যে পরিমাণমতো নারকেলের পুর দিন।
খোলা অংশ আঙুল দিয়ে চেপে মুড়ে দিন।
মোড়ানো অংশে পিঠার আঙুল দিয়ে নকশা করুন।
এবার হাঁড়িতে পানি দিয়ে মুখ একটি পরিষ্কার পাতলা কাপড় দিয়ে বেধেঁ চুলায় দিন।
পানি ফুটে উঠলে পিঠাগুলো কাপড়ের ওপর দিয়ে ঢেকে দিন।
কিছুক্ষণ পরে ঢাকনা তুলে পিঠেগুলো উল্টে দিন।
দুই দিকেই ভালো ভাবে সেদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

Post A Comment: