Decrease font Enlarge font
কাকের জ্বালায় দুনিয়ার লোক অস্থির। বিশেষ করে গৃহিনীরা। খাবার থেকে শুরু করে সাবান---কিছুই নিরাপদ নয় কাকের নখর আর ঠোঁট থেকে। এজন্যই কাকের বাসাটা এক জীবন্ত মহাফেজখানা হয়ে থাকে। ফেলনা-অফেলনা, দুনিয়ার সব জিনিসের দিকেই কাকের চোখ।

এবার দুষ্টু একদল কাক ইংল্যান্ডের লিড্‌সের একটা গল্‌ফ কোর্টে খেলোয়াড়দের জীবন অতীষ্ঠ করে তুলেছে। প্রতিদিনই এরা  গড়ে ৭টা গল্‌ফ বল চুরি করে নিচ্ছে। এনিয়ে শ-য়ে শ-য়ে বল চলে গেছে কাকের দখলে। খেলোয়াড়েরা খেলার মাঝখানে স্কোর করতে করতে হঠাৎই দেখতে পান মূর্তিমান বিভীষিকার মতো কোথা থেকে উড়ে এসে কাকেরা বল নিয়ে উড়ে চলে যাচ্ছে। ফলে মাঝপথেই পুরো খেলাটা মাটি। মানে প্রতিযোগিতাটাই মাঝপথে হয়ে যাচ্ছে পণ্ড। এ নিয়ে পত্রিকার শিরোনামই বলে দেয় কতোটা বিপদে পড়েছেন খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও দর্শকেরা: ‘Crows driving golfers at Leeds course to despair by swooping down and stealing balls’

কিন্তু কেন এমন করছে কাকেরা? সে প্রশ্নের জবাবও মিলেছে। আসলে শাদা রঙের গল্‌ফ বলকে ওরা ডিম ভেবে ভুল করছে। তাই সহজ সমাধান বাতলেছেন বিশেষজ্ঞরা: শাদা রঙের বল বাদ দিয়ে রঙিন ফ্লুরোসেন্ট বল ব্যবহার করলেই কাকের জ্বালাতন নাকি কমবে অনেক।

হেডিংলির ওই গল্‌ফ ক্লাবটির কর্মকর্তা জন হল জানালেন তার নিজের চোখে দেখা অভিজ্ঞতা—কী করে কাকেরা এসে খেলার মাঝখানে ছোঁ মেরে বল নিয়ে চলে যায় আর খেলার বারোটা বাজায়।বেশ কিছুদিন ধরেই নাকি চলছে এই ‘কাকীয় সন্ত্রাস’।

জন হল আরো জানালেন, এরই মধ্যে এক লোক নাকি কুকুর নিয়ে হাঁটার সময় একটা মরা গাছের খোড়লের মধ্যে পেয়েছেন অসংখ্য গল্‌ফ বল।-একটা দুটো নয়, ১৫০০ গল্‌ফ বল—‘...a dog walker discovered a hollow tree near Temple Newsam containing an estimated 1,500 golf balls.’। বুঝুন এবার কেমন দুষ্টু পাখি এই কাক!

Post A Comment: