রিয়াদ: সৌদি শ্রম মন্ত্রণালয় বাংলাদেশি শ্রমিক বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রে পুরুষ শ্রমিকের নিয়োগের হার নারী শ্রমিকের ২০ শতাংশ ধরা হয়েছে। 

সৌদি শ্রম প্রতিমন্ত্রী আহমেদ আল হুমাইদান এর বরাত দিয়ে এ কথা জানায় জেদ্দা ভিত্তিক প্রভাবশালী দৈনিক সৌদি গেজেট। 

সৌদি আরবে নতুন শ্রম আইন চালুর ব্যপারে এক সাংবাদিক সম্মেলনে আহমেদ আল হুমাইদান বলেন,  যে সকল সৌদি নারী বিদেশি নাগরিক বিয়ে করেছেন তাদের সন্তানরা আধা সৌদি হিসাবে চিহ্নিত হবে। কোনভাবেই তারা পূর্ণাঙ্গ সৌদি হিসাবে সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে না যদিও বর্তমানে শিক্ষা ও চিকিৎসার ক্ষেত্রে তারা পূর্ণাঙ্গ সুবিধা পাচ্ছেন।
শ্রম মন্ত্রণালয়ের এক হিসাব মতে, প্রায় ৭ লক্ষ সৌদি নারী বিদেশি পুরুষ বিয়ে করে সংসার করছেন। নিতাকাত (সৌদিকরণ) আইনে এ সকল নারীর মৃত্যুর পর তাদের সন্তানরা সৌদি আরবের যাবতীয় সুবিধা হতে বঞ্চিত হবেন এবং তাদেরকে অন্য স্পন্সর এর অধীনে চলে যেতে হবে। বর্তমানে ঐসব নারীই তার সন্তানের স্পন্সর হিসাবে রয়েছেন। 

সৌদি নারীদের বিয়ের ক্ষেত্রে ইয়েমেনি পুরুষরা এগিয়ে। এরপর আছে, কুয়েত, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিশর, লেবানন, সিরিয়া ও পাকিস্তান। 

তাদের মধ্যে মার্কিন, বৃটিশ এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশের নাগরিকরাও রয়েছেন তবে তা সংখ্যায় অত্যন্ত কম। 

বিদেশি শ্রমিক নিয়োগের ব্যাপারে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন,  যে সব দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ বন্ধ করা হয়েছে সে সব দেশের শ্রমিক যারা পূর্ব থেকে কাজ করে যাচ্ছেন তাদের চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ হবার সাথে সাথে তাদের স্ব-স্ব দেশে ফেরত পাঠানো হবে। তবে কোন কোন দেশের শ্রমিক নিয়োগ বন্ধ রয়েছে সে বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি।

Post A Comment: