এবারই প্রথম চলচ্চিত্রের রূপালি পর্দায়  অভিনয় শিল্পী হিসেবে দেখা যাবে রোবটকে। জাপানে 'সায়োনারা' নামে নির্মিত ছবিতে 'জেমিনয়েড এফ' নামের অ্যান্ড্রোয়েড রোবটটি ব্যবহার করা হয়েছে। রাবার দিয়ে তৈরি ত্বকের কারণে দূর থেকে দেখলে মানুষ বলে ভ্রম হয়। এই রোবটটি কথা বলতে এবং হাঁটতে পারে না, পুরো ফিল্মে রোবটটিকে একটি চাকার সাহায্যে ঘোরানো হয়েছে। তবে হাসতে পারে জেমিনয়েড এফ।


তবে বড় পর্দায় 'জেমিনয়েড এফ'ই প্রথম অ্যান্ড্রোয়েড রোবট নয়। এর আগেও চলচ্চিত্রে অ্যান্ড্রোয়েড রোবট দেখা গেছে। কিন্তু জেমিনয়েডই প্রথম রোবোট যে পরিচালকের কথা বুঝে অভিনয় করেছে। আগের রোবটদের অভিনয় করানোর সময় ভিজুয়াল এফেক্ট ব্যবহার করা হতো। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২১ নভেম্বর 'সায়োনারা' মুক্তি পাবে।

মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী ও বিরোধীদলীয় নেত্রী অং সান সু কি দেশটির প্রেসিডেন্টের চেয়েও বড় পদে আসীন হতে চান। আগামী রবিবার দেশটির সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে তার দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি জয় পেলে-ই প্রেসিডেন্টের চেয়েও শীর্ষ পদ সৃষ্টি করে তিনি উক্ত পদে আসীন হওয়ার আকাঙ্ক্ষার কথা ব্যক্ত করেছেন। আজ এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সু কি। খবর এপির
সংবাদ সম্মেলনে সু কি বলেন, 'আমি প্রেসিডেন্টের ঊর্ধ্বে থাকবো। এটা সহজ বার্তা।' তবে প্রেসিডেন্টের উর্ধ্বে তিনি কি পদ চান এ ব্যাপারে বিস্তারিত আর কিছুই জানাননি তিনি।
প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে সু কি উপর সাংবিধানিক নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই তার দল নির্বাচনে জয়লাভ করলেও তিনি প্রেসিডেন্ট পদে আসীন হতে পারবেন না। তাই এ প্রতিবন্ধকতা কাটাতেই তিনি প্রেসিডেন্টের ঊর্ধ্বে কোনো পদ সৃষ্টির আভাস দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ২০১১ সাল পর্যন্ত মিয়ানমারে দীর্ঘ প্রায় ৫০ বছর সামরিক শাসন ছিল। - See more at: http://www.bd-pratidin.com/international-news/2015/11/05/107799#sthash.P1mWIxHl.dpuf
মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী ও বিরোধীদলীয় নেত্রী অং সান সু কি দেশটির প্রেসিডেন্টের চেয়েও বড় পদে আসীন হতে চান। আগামী রবিবার দেশটির সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে তার দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি জয় পেলে-ই প্রেসিডেন্টের চেয়েও শীর্ষ পদ সৃষ্টি করে তিনি উক্ত পদে আসীন হওয়ার আকাঙ্ক্ষার কথা ব্যক্ত করেছেন। আজ এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সু কি। খবর এপির
সংবাদ সম্মেলনে সু কি বলেন, 'আমি প্রেসিডেন্টের ঊর্ধ্বে থাকবো। এটা সহজ বার্তা।' তবে প্রেসিডেন্টের উর্ধ্বে তিনি কি পদ চান এ ব্যাপারে বিস্তারিত আর কিছুই জানাননি তিনি।
প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে সু কি উপর সাংবিধানিক নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই তার দল নির্বাচনে জয়লাভ করলেও তিনি প্রেসিডেন্ট পদে আসীন হতে পারবেন না। তাই এ প্রতিবন্ধকতা কাটাতেই তিনি প্রেসিডেন্টের ঊর্ধ্বে কোনো পদ সৃষ্টির আভাস দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ২০১১ সাল পর্যন্ত মিয়ানমারে দীর্ঘ প্রায় ৫০ বছর সামরিক শাসন ছিল। - See more at: http://www.bd-pratidin.com/international-news/2015/11/05/107799#sthash.P1mWIxHl.dpuf

Post A Comment: