মাই ওয়াইফ’স লাভার
মাই ওয়াইফ’স লাভার
Decrease fontEnlarge font
কার্ল কাহলারের বিখ্যাত পেইন্টিং মাই ওয়াইফ’স লাভার। ১৮৯১ সালে আঁকা এই ছবিটি বিক্রি হয়েছে গত ৩ নভেম্বর। ১৯ শতকের ইউরোপিয়ান এই চিত্রকর্মটির সম্ভাব্য মূল্য ধরা হয়েছিল তিন লাখ ডলার। কিন্তু এরচেয়ে দুই গুণ বেশি দামে, অর্থা‍ৎ আট লাখ ২৬ হাজার মার্কিন ডলারে বিক্রি হয়েছে পেইন্টিংটি।

ছয় ফুট দৈর্ঘের সাড়ে আট ফুট চওড়া পেইন্টিংটির ওজন দুইশ’ ২৭ পাউন্ড। ছবিতে রয়েছে মোট ৪২টি বিড়াল।

মূলত একটি বাস্তব ছবিকেই তুলির আঁচড়ে রাঙিয়েছেন কাহলার। বিড়ালগুলোর মালিক সান ফ্রান্সিসকোর ধনকুবের কেট বার্ডসল জনসন। তার মোট তিনশ’ ৫০টি বিড়াল ছিল। জনসন তার বিশাল বিড়াল বাহিনী নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়ার সনোমায় তিন হাজার একর জায়গায় নিজের খামারে থাকতেন।

একবার তিনি ভাবলেন নিজের প্রিয় বিড়ালদের একটি সুন্দর ছবি আঁকাবেন। দায়িত্ব দিলেন ঘোড়া দৌড়ের দৃশ্য আঁকায় বিখ্যাত কাহলারকে। সময়টাও ছিল ধরাবাঁধা। কিন্তু কাহলার ঘোড়া দৌড়ের দৃশ্য আঁকায় বিখ্যাত হলেও কখনোই আগে বিড়াল আঁকেন নি।

যেহেতু আগে কখনো বিড়াল আঁকেন নি, কাহলার বিড়ালগুলোর স্বতন্ত্র চরিত্র বোঝার জন্য প্রতিটি বিড়ালের বেশ কয়েকটি আলাদা আলাদা স্কেচ তৈরি করলেন। এবং প্রায় তিন বছর সময় ব্যয়ে ছবিটি এঁকে শেষ করলেন। নামকরণ করেছিলেন জনসনের স্বামী।

১৯৪৯ সালে ক্যাট ম্যাগাজিন এই ছবিটিকে বিড়ালের সেরা পেইন্টিং বলে উল্লেখ করে।

ছবিটির ক্রেতা যে-ই হোক না কেন, সমজেই অনুমান করা যাচ্ছে তার মধ্যেও বিড়ালপ্রীতির কমতি নেই। ছবির দামের হিসেবে ৪২টি বিড়ালের এক একটির দাম পড়েছে ১৯ হাজার ছয়শ’ ৬৬ মার্কিন ডলার করে।

তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট

Post A Comment: