আয়ারল্যান্ডের এলিওয়ি নামের ছোট্ট দ্বীপের মধ্যখানে ছোট্ট একটি বাড়ি। এটি হলো বিশ্বের সবচেয়ে বিচ্ছিন্ন ও নির্জন বাড়ি। এটা আসলে একটি অস্থায়ী রিসোর্ট টাইপের বাড়ি। পাখি শিকারের মৌসুমে শিকারীরা এ বাড়িটিতে থাকেন। দীর্ঘ ঠোঁটের পাফিন পাখি শিকারের জন্য এখানে আসেন তারা। এ পাখির প্রজননের জন্য দ্বীপটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

একসময় এ দ্বীপে পাফিন পাখি শিকার, পশু পালন ও মাছ ধরার কাজে বসবাস করত পাঁচটি সমৃদ্ধ পরিবার। প্রায় ৩০০ বছর আগে তারা ভাবতে থাকেন এই দ্বীপ পাখি শিকার ও পশুপালনের জন্য খবু একটা ভালো জায়গা না। তারা সেখান থেকে অন্য জায়গায় সরতে শুরু করেন। কিন্তু পাফিন পাখি শিকারের জন্য এর চেয়ে ভালো স্থানও তারা আর এ পশ্চিমাঞ্চলে খুঁজে পেলেন না।

তাই ১৯৫০ সালে এলিওয়ি হান্টিং অ্যাসোসিয়েশন ওই দ্বীপে অস্থায়ীভাবে থাকার জন্য একটি বড় বাড়ি তৈরি করল তাদের সদস্যদের জন্য। এটা শুধু পাফিন পাখি শিকারের জন্য। উত্তর আটলান্টিক সাগরে অবস্থিত এ দ্বীপ সব সময় সামুদ্রিক পাখিদের খুবই প্রিয় একটি জায়গা। তবে সেটা নিকটতম জনবসতি থেকে এত দূরে তবু সেখানে মানুষ শখ করে যায়। সব ধরনের যোগাযোগ থেকে এ বাড়িটি বিচ্ছিন্ন।

Post A Comment: