x

Decrease fontEnlarge font
ঢাকা: কাজ করতে করতে অনেকে সহজেই ক্লান্ত অনুভব করেন। শরীর অচল হয়ে পড়ে। মনে হয় একটু বিশ্রাম নিয়ে নিই। 

গবেষণায় দেখা গেছে, ব্রেকফাস্ট সচেতনতাও মনোযোগ বাড়ায়। ভালো ও পরিপূর্ণ ব্রেকফাস্ট সারাদিনে অতিরিক্ত খাওয়া, স্থ‍ূলতা, ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

তবে ব্রেকফাস্টে কী খাচ্ছেন তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একাডেমি অব নিউট্রিশন ও ডায়েটিক্স জার্নাল সারদিনের শক্তির জন্য ও শরীরকে কর্মক্ষম রাখতে কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ খাবার ও সহনশীলতার জন্য প্রোটিন খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। এক্ষেত্রে সহজলভ্য কী কী খাবার খাওয়া যেতে পারে তার একটি ছোট তালিকা দেখে নেওয়া যাক- 

গমের বনরুটি ও পনির
একটি মাঝারি গমের বনরুটিতে থাকে দুইশো ৭০ ক্যালরি ও ১.৭০ গ্রাম ফ্যাট। এর সঙ্গে খেতে পারেন এক চা চামচ লো-ফ্যাট ক্রিম চিজ। এতে যোগ হলো আর ৯৭ ক্যালোরি ও ৯.৯১ গ্রাম ফ্যাট। পুরো খাবারটিতে পাওয়া যাবে তিনশো ৬৭ ক্যালরি ও ১১.৬১ গ্রাম ফ্যাট।  

ফ্লেক্স, ফল ও টকদই
টকদই ও ফ্লেক্স অত্যন্ত জনপ্রিয় কম্বিনেশন। টকদইতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, প্রোটিন, ভিটামিন এ, রিবোফ্লাভিন, ফসফরাস ও পটাশিয়াম। বাড়তি পটাশিয়াম যোগ করতে কলা ব্যবহার করতে পারেন। সঙ্গে রাখেতে পারেন প্রিয় অন্যান্য ফলও। 

গমের রুটি ও হার্ড বয়েলড এগ
হার্ড বয়েল এগ বলতে ডিমের কুসুম শক্ত হয়ে যাওয়া পর্যন্ত সিদ্ধ করুন। এতে রয়েছে আপনার শরীরের প্রয়োজনীয় প্রোটিন ও ফ্যাট। তবে এটি কার্বোহাইড্রেটের গুরুত্বপূর্ণ উৎস না হওয়ায় যোগ করতে পারেন গমের রুটি। 


এগ স্ক্রাম্বল, ফল ও পিনাট বাটার
দুধ ও মাখন দিয়ে এগ স্ক্রাম্বল করে খাওয়া যেতে পারে। একশো গ্রাম এগ স্ক্রাম্বলে রয়েছে প্রায় দেড়শো ক্যালরি। আরও রয়েছে ভিটামিন এ, ভিটামিন ডি ও ভিটামিন বি-১২। সঙ্গে আপেল গোল গোল করে কেটে প্রতি স্লাইসে পিনাট বাটার দিয়ে খাওয়া যেতে পারে। যাতে পাওয়া যাবে ফ্যাট, ডায়েট্রি কার্বোহাইড্রেট ও প্রোটিন। 

Post A Comment: