আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলোর বিরোধিতা অগ্রাহ্য করে মঙ্গলবার ভোরে দীর্ঘদিন ধরে আলোচিত শাফকাত হোসেনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়েছে পাকিস্তান। ২০০৪ সালে শিশু অপহরণ ও হত্যার দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন ১৪ বছরের শাফকাত। তখন অল্পবয়সী হওয়ায় তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা সম্ভব হয়নি। চলতি বছরও চার চার বার রদ করা হয়েছিল তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ। মঙ্গলবার সকালে করাচি সেন্ট্রাল জেলে শাফকাতকে ফাঁসিতে ঝুলানো হয় বলে পাকিস্তানের ডন পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে জানানো হয়েছে। এর আগে সোমবার মধ্যরাতে কারাগারে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মিলিত হয়েছিলেন তিনি।এর আগে তার মৃত্যুদণ্ড বাতিলের সবকটি আবেদন খারিজ হয়ে যায়। গতবছর ডিসেম্বরে পেশোয়ারের আর্মি স্কুলে সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিসন্তানে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ঘটনা বেড়ে গেছে। ওই সময় থেকে এ পার্যন্ত কমপক্ষে ১৯৩ জনের ফাঁসি কার্যকর করেছে পাক কর্তৃপক্ষ। 

Post A Comment: