সত্যিকারের ‘সিন্ডারেলা’!
সত্যিকারের ‘সিন্ডারেলা’!


সাবেক এক রিয়েলিটি শো’র তারকার সাথে বিয়ের বন্ধনে বাঁধা পড়তে যাচ্ছেন সুইডিশ যুবরাজ কার্ল ফিলিপ। সুইডেনের ইতিহাসে এবারই দেশটির রাজপরিবারের কোনো সদস্য একেবারেই সাধারণ জনতার মধ্য থেকে হবু বধূ পছন্দ করেছেন।


বিবিসি জানিয়েছে, সুইডেনের রাজপরিবারের সদস্য হতে যাওয়া ‘আমজনতা’ সোফিয়া হেলকভিস্ত (৩০) আগে বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে কাজ করতেন। পরে তিনি যোগব্যায়ামের নির্দেশনা দেয়ার কাজে যোগ দেন এবং এখন মনোনিবেশ করেছেন দাতব্য কাজে।


তার বাগদত্ত সুইডিশ রাজকুমার ৩৬ বছরের কার্ল ফিলিপ সুইডেনের সিংহাসনের তৃতীয় উত্তরাধিকারী। এই যুবরাজের বিয়ের দিন দেশটির রাজধানী স্টকহোমের রাজপথে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ সমবেত হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।


জনমত জরিপে সুইডিশ রাজপরিবারের জনপ্রিয়তা ক্রমাগত কমতে থাকার তথ্য উঠে আসলেও সুইডিশ যুবরাজের এই রাজপরিবার বহির্ভূত একজন সাধারণ নারীকে স্ত্রী করে ঘরে তোলার দিন জনসাধারণ তাতে সমর্থন দেবে না, শুভেচ্ছা জানাবে না- এমনটা তো হওয়ার নয় এমনিতেও।


এই জুটির ভালোবাসাকে রূপকথার ‘সিন্ডারেলা’র গল্পের সাথে তুলনা করছেন অনেকেই। ‘সিন্ডারেলা’র মূল চরিত্র কিশোরী সিন্ডারেলা একটি সাধারণ পরিবারের মেয়ে হলেও তার সাথে বেশ অদ্ভুতভাবেই পরিচয় এবং তা থেকে পরিণয়ের ঘটনা ঘটেছিল এক রাজকুমারের। আর সুইডিশ রাজকুমারের ক্ষেত্রেও ঘটনা নাকি অনেকটাই একইরকমের!


তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক এই জুটির ভালোবাসা শুরুর গল্পটি!


২০১০ সালে প্রথমবার এক রেস্তোরাঁতে দেখা হয়েছিল তাদের। তখনই আসন্ন প্রেমের সম্পর্কের গুজবে সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন তারা। সেসব সংবাদে সুইডিশ গণমাধ্যম তরুণীর অতীতের অনেকটাই প্রকাশ করেছিল যেখানে উঠে এসেছিল তার তারকাজগতের সাথে সংশ্লিষ্টতার কিছু ছবি ও তথ্য।


তবে অতীত নিয়ে কোনো সংকোচ নেই- এমনটাই এক সুইডিশ টেলিভিশন চ্যানেলকে জানিয়েছেন সোফিয়া। অবশ্য তার অতীত নিয়ে হবু শ্বশুরবাড়ি, অর্থাৎ রাজপরিবারের মধ্যে সমস্যা দৃষ্টি হয়েছে বলেও গুজব রয়েছে। শোনা যায়, বর্তমানে সোফিয়া দাতব্য কাজে জড়িত রয়েছেন বলে তার অতীতকে ক্ষমার দৃষ্টিতে নিয়েছে রাজপরিবার। দক্ষিণ আফ্রিকায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে কাজ করেন সোফিয়া।

Post A Comment: