বার্সেলোনাকে ‘ট্রেবল’ জিতিয়ে লিওনেল মেসির মনোযোগের কেন্দ্রে এই মুহূর্তে কোপা আমেরিকা। লাতিন ফুটবলের এই ‘বিশ্বকাপ’ খে​লতে তিনি ইতিমধ্যে যোগ দিয়েছেন আর্জেন্টিনা দলের সতীর্থদের সঙ্গে। লক্ষ্য একটাই, যেকোনো মূল্যেই জিততে হবে এবারের কোপা।

 
১৯৮৬ সালে বিশ্বকাপ জয়ের পর আর্জেন্টিনা সর্বশেষ কোনো আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা জিতেছিল সেই ১৯৯৩ সালে। এই কোপা আমেরিকা প্রতিযোগিতাই। কিন্তু এরপর কেটে গেছে ২৩ বছর। এবার চিলিতে আর্জেন্টিনা ২৩ বছরের বন্ধ্যাত্ব ঘোঁচাতে পারবে কিনা, এই প্রশ্ন প্রায় ফুটবলপ্রেমীদেরই। মেসিকেও ছুঁয়ে যাচ্ছে যাবতীয় প্রত্যাশা। তিনিও চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞায় তৈরি করছেন নিজেকে। নাহ! এবার জিততেই হবে দেশের হয়ে কিছু। আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে এই না পাওয়ার বেদনাটা আর ভালো লাগছে না।
মেসি অবশ্য এবার বেশ আশাবাদী। চীনের সংবাদ সংস্থা সিনহুয়াকে তিনি বলেছেন, ‘এবার আমি দারুণ ফর্মে আছি। হয়ত জীবনের সেরা ফর্মেই। ভেতর থেকে ভালো বোধ করছি। ছন্দে আছি। আশা করছি এবারের কোপা আমেরিকায় ভালো কিছুই হবে।’
কোপা আমেরিকা নিয়ে আশাবাদ আছে মেসির মধ্যে। কিন্তু একটা আফসোসও যেন তিনি বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছেন সঙ্গে করে। আফসোসটা হল বিশ্ব জয়ের খুব কাছ ​থকে ফিরে আসার। ঠিক এক বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনালে অতিরিক্ত সময়ে মারিও গোটশের গোলে জার্মানির কাছে হেরে গিয়েছিল মেসির দল। ব্যাপারটা ভুলেই থাকতে চান মেসি। প্রায়ই ভাবেন, এবারের মৌসুমে যে ফর্মটা দেখালেন, সেটা যদি বিশ্বকাপের সময় দেখাতে পারতেন, ‘হ্যাঁ, বিশ্বকাপের সময় যে ফর্ম ছিল তারচেয়ে অনেক ভালো ফর্মে এই মুহূর্তে আছি আমি। বিশ্বকাপের সময় খুব বেশি ছন্দে ছিলাম না। তবে এসব নিয়ে কথা বলে লাভ নেই। এবার যখন ফর্মে আছি, তখন এটাকে ব্যবহার করেই আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকার গৌরব এনে দিতে চাই। এই দলটার জন্য একটা কোপা-শিরোপা কিন্তু প্রাপ্যই।’

Post A Comment: