ফেনীতে প্রায় পৌনে সাত লাখের বেশি ইয়াবা বড়িসহ পুলিশের এক কর্মকর্তা ও তাঁর
গাড়িচালককে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-৭। গতকাল শনিবার রাতে সদর উপজেলার লালপুলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে তাঁদের আটক করা হয়।
আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. মাহফুজুর রহমান (৩৫) ও তাঁর গাড়িচালক মো. জাবেদ আলী (২৯)। এসময় ইয়াবা বড়ি বহনের কাজে ব্যবহৃত কালো রংয়ের ‘এলিয়ন’ ব্রান্ডের একটি প্রাইভেট কার জব্দ করা হয়েছে।
র‌্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মোজাম্মেল হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে একটি কালো রঙের এলিয়ন প্রাইভেট কার (ঢাকা-মেট্রো-গ-১৭-৭১৮১) ফেনীর লালপুল এলাকায় মহাসড়কে এক শিশুকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল। তখন র‌্যাব সদস্যরা ওই প্রাইভেট কার আটক করে। তখন সেটিতে তল্লাশি চালিয়ে ৬ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়, যার আনুমানিক মূল্য ২৭ কোটি ২০ লাখ টাকা। এ ছাড়াও মাদক বিক্রি থেকে পাওয়া নগদ সাত লাখ টাকা, চারটি মোবাইল সেট, আটটি ক্রেডিট কার্ড, মাদকের টাকার হিসাব সংক্রান্ত তিনটি নোট বই উদ্ধার করা হয়।
ওই বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, আটক মো. মাহফুজুর রহমান পুলিশের একজন সহকারী উপপরিদর্শক। তিনি এসবি ঢাকা টেকনিক্যাল সেকশনে কর্মরত। তার বিপি নম্বর ৮০০১০৬৩১১৯ ও এসবি আইডি নম্বর ৭৭৮৫।
ওই বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মো. মাহফুজুর রহমান জানিয়েছেন, তিনি কক্সবাজারের টেকনাফ থানায় ২০১১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত কর্মরত থাকাকালীন সময়ে বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীর সঙ্গে তাঁর সখ্য গড়ে ওঠে। বর্তমানে কক্সবাজারের ডিবির একজন এএসআই মো. বেলাল, চট্টগ্রামের কুমিরা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. আশিক ও ঢাকার ডিবি কনস্টেবল শাহিন, কাশেম ও গিয়াস, হাইকোর্টের মুহুরি মোতলেব ও জাকির নামের একজন আইনজীবী এ কাজের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন। এ ছাড়া তাঁদের কাছে পাওয়া নোটবুকে ১৪ জনের সঙ্গে ইয়াবা লেনদেনের ২৮ কোটি ৪৪ লাখ ১৩ হাজার টাকার হিসাব পাওয়া গেছে।
র‍্যাবের বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, মাহফুজুরের বাড়ি কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ার মিরপুরে ও জাবেদের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে। কক্সবাজার থেকে ইয়াবা বড়ি নিয়ে ঢাকা যাওয়ার পথে তাঁদের আটক করা হয়। তাঁদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হবে।
এদিকে ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহম্মদ শামসুল আলম সরকার বলেন, আটকের বিষয়টি তিনি শুনেছেন। তবে দুপুর পর্যন্ত র‍্যাব তাঁদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেনি।

Post A Comment: