জেলা পর্যায়ে গ্রামীণফোন-প্রথম আলো আই-জেন ২০১৫ এর দ্বিতীয় পর্ব শুরু হচ্ছে ২৫ জুন থেকে। আজ সোমবার রাজধানীর বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। আই-জেন হচ্ছে বাংলাদেশের বৃহত্তম ইন্টারনেট ভিত্তিক উদ্যোগ, যার মাধ্যমে তরুণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইন্টারনেট বিষয়ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং ইন্টারনেট বিষয়ক সচেতনতা তৈরি করা হয়।

গ্রামীণফোনের পরিচালক মার্কেটিং নেহাল আহমেদ বলেন, গত কয়েক বছর ধরে আই-জেন অনুষ্ঠিত হলেও এবারে কিছুটা ভিন্নভাবে হচ্ছে আই-জেন। এবার স্কুলভিত্তিক ১০ জনের টিম নির্বাচন করা হচ্ছে। চলতি বছরের আই-জেনের প্রথম পর্ব সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এ বছরের ২৫ এপ্রিল থেকে প্রথম পর্ব শুরু হয়। প্রথম পর্বে সারা দেশে দুই হাজার স্কুল থেকে আট লাখ ৭০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। প্রথম পর্বে উত্তীর্ণ ১০ হাজার শিক্ষার্থীকে নিয়ে জেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হবে দ্বিতীয় পর্ব।
নেহাল আহমেদ আরও বলেন, বিভিন্ন অঞ্চল থেকে উত্তীর্ণ চূড়ান্ত ৪০ জনের প্রতিযোগিতা চ্যানেল আইতে একটি রিয়েলিটি শোর মাধ্যমে দেখানো হবে। সর্বশেষ তিনটি দল ফাইনাল গালা ইভেন্টে বিজয়ী হওয়ার জন্য প্রতিযোগিতা করবে।
নতুন প্রজন্মের কাছে ইন্টারনেটের আলো পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে ২০১১ সাল থেকে আই-জেন উদ্যোগ চালু হয়। উদ্যোগটিতে সহযোগী আয়োজক প্রথম আলো। এ ছাড়া অন্যান্য সহযোগীদের মধ্যে রয়েছে অ্যালপানলিবে ব্র্যান্ড, মাইক্রোসফট, অপেরা মিনি, এখানেই ডটকম, রেক্সোনা, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক, উরি ব্যাংক, রেডিও ফুর্তি ও চ্যানেল আই।
আই-জেনের দ্বিতীয় পর্ব ঘোষণার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গ্রামীণফোনের সিএমও অ্যালান বঙ্কে, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানসহ সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিরা।
অনুষ্ঠানে অ্যালান বঙ্কে বলেন, ‘বরাবরেই মতোই আমরা প্রথম আলোর সঙ্গে যৌথভাবে আই-জেন আয়োজন করেছি। এটা আমরা কেন আয়োজন করছি? আমরা বিশ্বাস করি ইন্টারনেট সমাজকে শক্তিশালী করে তোলে। আর এটাই গ্রামীণফোনের লক্ষ্য। সবার জন্য ইন্টারনেট উদ্যোগকে এগিয়ে নিয়ে যেতে এবং ডিজিটাল প্রজন্ম তৈরি করতে এই উদ্যোগ।’
প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, ‘২০১১ সাল থেকে গ্রামীণফোন ও প্রথম আলো আই-জেন উদ্যোগ শুরু করে। এ বছর দুই হাজার স্কুলে অনুষ্ঠিত হচ্ছে আই-জেন। এত বড় কার্যক্রম বাংলাদেশে আর সম্ভবত হয়নি। এ জন্য গ্রামীণফোন ও সহযোগীদের বিশেষ ধন্যবাদ। এই উদ্যোগের সঙ্গে ভবিষ্যতেও প্রথম আলো থাকবে।’

Post A Comment: