গুগলের দুঃস্বপ্ন হতে চলেছে একটি মোবাইল ব্রাউজার
গুগলের দুঃস্বপ্ন হতে চলেছে একটি মোবাইল ব্রাউজার

সত্য হতে চলেছে গুগলের দুঃস্বপ্ন। আর তা একটি মোবাইল ব্রাউজার। এটি গুগলের যাবতীয় বিজ্ঞপান ব্লক করে দেবে। এতে করে বিশাল অংকের রেভিনিউ হারাবে টেক জায়ান্ট গুগল। আইয়ো জিএমবিএইচ নামে একটি জার্মান কম্পানি জনপ্রিয় অ্যাডব্লক প্লাস এক্সটেনশন-কে প্রধান ব্রাউজারের জন্যে তৈরি করছে। সম্প্রতি এর বেটা সংস্করণ ছেড়েছে তারা। ফায়ার ফক্স-ভিত্তিক এই ব্রাউজারটি মোবাইলের যাবতীয় বিজ্ঞাপন ব্লক করে দেয়। নিঃসন্দেহে এটি গুগলে জন্যে দারুণ খারাপ খবর।


এখন এই ব্রাউজার গুগলের জন্যে কতটা ক্ষতিকর হতে পারে তা গুগলের আয়ের পরিমাণের ওপর নির্ভর করে। গুগল মূলত অ্যান্ড্রয়েডকে তাদের অর্থ কামানোর মেশিন হিসাবে বানিয়েছে। এটি ফ্রি এবং অপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম। এর মাধ্যমে মোবাইল অ্যাড প্রচার এবং ব্যবহারকারীর কেনার ব্যবস্থা রয়েছে। গুগল এও দেখে যে আপনি ক্রোম ব্যবহার করছেন নাকি অন্য কোনো ব্রাউজার। অনেকে সম মোবাইল ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব কিছু অ্যাপ পেয়ে যান ক্রোম ব্যবহার করে। এ কারণে গুগল ওই সব অ্যাপ ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করে।

এর আগে ২০১২ সালে কম্পিউটারে অ্যাডব্লক প্লাস গুগলের ৮৮৭ মিলিয়ন ডলারের ক্ষতি করেছিল। পেজফেয়ার তাদের গবেষণায় এ তথ্য জানায়। এটা গুগলের ওই বছরের মোট আয়ের ২ শতাংশের সমান।

গুগল, মাইক্রোসফট, আমাজন এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন যে পরিমাণ অর্থের বিজ্ঞাপন ব্লক করেছিল তার ৩০ শতাংশ আইয়ো-কে প্রদানে রাজি হয়েছিল। ২০১২ সালেও গুগল আইয়ো-কে ২২৬ মিলিয়ন ডলার দেয় বলে জানা যায়।

আগের অ্যাডলকটি শুধুমাত্র রুট করা যন্ত্রে ব্যবহার করা যেতো। কিন্তু নতুনটি রুট করা বা না করা সব যন্ত্রেই চলবে। যদি এই ব্রাউজার গুগলের ক্রোমের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে আসে, তবে গুগল মোবাইলের বিজ্ঞাপন থেকে প্রচুর অর্থ হারাবে।

আগেরবার অ্যাডলক বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল। এবার তা আরো বেশি জনপ্রিয় হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এ সমস্যা থেকে বাঁচতে সম্ভবত গুগলকে আরো বেশি পরিমাণ অর্থের প্রস্তাব পাঠাতে হবে অ্যাডলককে। 

Post A Comment: