বছরে ১০০ বোতল মদ পান করা কি অনেক বেশি মনে করেন? শুনলে অবাক হবেন, বিশ্বের বিত্তশালী দেশগুলিতে মানুষের গড় মদ্যপানের হিসেব এই রকমই।

drinks couse is die, অসুখে কম, মদ্যপানেই বেশি মানুষ মরছে, ড্রিংক্স করেই বেশি মানুষ মরছে, অসুখে কম।
drinks couse is die, অসুখে কম, মদ্যপানেই বেশি মানুষ মরছে, ড্রিংক্স করেই বেশি মানুষ মরছে, অসুখে কম।
দুনিয়ার কোন দেশে কত মদ্যপান করা হয়, সেই হিসাব কষতে সম্প্রতি সমীক্ষার আয়োজন করা হয়েছিল। দেখা গিয়েছে, ধনী দেশগুলিতে বছরে মাথাপিছু ১০০ বা তার বেশি বোতল খরচ হয়। দ্য অর্গানাইজেশন অফ ইকনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, সংক্ষেপে ওইসিডি-র সদস্য ৩৪টি দেশের মানুষের ওপর এই সমীক্ষা করা হয়েছে। সংগঠনের সেক্রেটারি-জেনারেল এঞ্জেল গুর্লা জানিয়েছেন, বিশ্বজুড়ে ক্রমেই বাড়ছে মদের পিছনে অর্থব্যয়ের প্রবণতা। তার দাবি, মহিলা ও কমবয়েসিদের মধ্যে মদ্যপানের অভ্যাস আগের চেয়ে অনেকটাই বেড়েছে।

রিপোর্টে জানানো হয়েছে, পৃথিবীতে এইডস, এইচআইভি, টিউবারকিউলোসিস বা হিংসাত্মক ঘটনার জেরে মৃত্যুর তুলনায় অতিরিক্ত মদ্যপানের কারণে মৃতের সংখ্যা বেশি। মদ্যপানের নেশায় বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন ইসরাইল, আইসল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, পোল্যান্ড ও সুইডেনের বাসিন্দারা। তুলনায় রাশিয়া, ব্রাজিল, চীন ও ভারতে মদ্যপায়ীর সংখ্যা অস্বাভাবিক হারে বাড়েনি। মদের নেশা বাড়ার পিছনে তার সহজলভ্যতা ও চটকদার বিজ্ঞাপনকেই দায়ী করা হয়েছে।

তবে ১৯৯২ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে হিসেবে ওইসিডি সদস্য দেশগুলিতে মদ্যপানের হার ২.৫ শতাংশ কমেছে। ওইসিডি সদস্য দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মদ্যপান করেন এস্তোনিয়া, অস্ট্রিয়া, ফ্রান্স, আয়ারল্যান্ড ও চেক রিপাবলিকের নাগরিকরা

Post A Comment: