যে ১১টি কাজ তিরিশের পরে অনুতাপে পোড়াবে আপনাকে
 যে ১১টি কাজ তিরিশের পরে অনুতাপে পোড়াবে আপনাকে

একেক বয়সে জীবনে একেক ধরনের কাজের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হয়। আবার কিছু কাজ আছে যার জন্যে পরবর্তীতে পস্তাতে হয়। বিশেষজ্ঞরা জানান, তিরিশের কোঠা পেরোনোর আগে কয়েকটি কাজে ব্যস্ত থাকলে পরে তা জীবনে অনুতাপের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। দেখে নিন সেই ১১টি কাজের তালিকা।


১. সমাজ সব সময় আপনার ওপর কিছু দায়িত্ববোধের বোঝা চাপিয়ে দেবে। যেমন- আপনি এখনো গাড়ি-বাড়ির মালিক হলেন না অথবা ঘর-সংসার পাতলেন না ইত্যাদি। এটা করা উচিত তো ওটা করা উচিত নয় ইত্যাদি। এগুলো শিকেয় তুলে রাখুন। আপনার মন যে কাজে সাঁয় দেয় তাই করুন। তবে অবশ্যই তা বৈধ হতে হবে। নয়তো পরে পস্তাবেন।

২. তারুণ্যের উদ্যমে হয়তো আপনি একা সময়ই বেশি কাটিয়েছেন। বাবা-মাকে সময় দেওয়ার সময়ই পাননি। কিন্তু সময় যখন চলে গেছে, তখন হঠাৎ উপলব্ধি করবেন যে আপনি বাবা-মায়ের কাছ থেকে কতটা বিচ্ছিন্ন ছিলেন। সারাজীবনে এই ভুল অনুতাপ হয়ে ভোগাবে।

৩. উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্যে সবাই এ বয়সে পেশাগত কাজকে সবার সামনে নিয়ে আসেন। কিন্তু প্রিয় মানুষেরে সঙ্গে সময় কাটানো বা আচার-আনুষ্ঠানিকতায় না জড়ানো বড় ধরনের ভুল হয়ে থাকবে। অর্থ-বিত্ত দিয়ে সেই সময় আর ফিরিয়ে আনতে পারবেন না।

৪. এ বয়সে সবার জীবনের বেশ কিছু সময় যায় নেতিবাচক মানুষের সঙ্গে সময় নষ্ট করে। তিরিশের কোঠায় মনে হতে পারে যে, এখন সেই মানুষগুলো এমনিতেই দূরে সরে যাবে। কিন্তু তা হয় না। কিছু মানুষ ঠিকই চারপাশে থাকবে। এদের থেকে সময়ের আগেই দূরে সরে যান। নয়তো পরে পস্তাবেন।

৫. তিরিশে পা দিয়ে অনেকেই ভাবেন, এই কাজ বা সেই কাজের বয়স এখন নেই। বড় ধরনের ভুল ভাবনা এটি। বিশ বছর বয়সে যা করতেন, তার ভালো অংশগুলো তিরিশেও ফিরিয়ে আনতে পারেন। তাই বয়সের দোহাই দিয়ে কিছু কাজ থেকে দূরে সরে ভুল করবেন না।

৬. হয়তো জীবনে অন্যকে নিজের আগে সুযোগ করে দিয়েছেন। এটা অনেক দিক থেকে ভালো। কিন্তু সব সময় নিজেকে পিছিয়ে রাখতে নেই। মাঝে মধ্যে সবার আগে নিজের চিন্তা করতে হয়। বিশেষ করে সম্পর্ক বা সংসার গড়ে তোলার ক্ষেত্রে নিজের বিষয়টি সবার আগে রাখবেন।

৭. অনেকেই ভাবেন, বয়স তো বেশ হয়নি। তাই নিজের স্বাস্থ্যের যত্ন পরে নেওয়া যাবে। অথচ সব সময়ই স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নশীল হতে হবে। দেখা যাবে একটা সময় থেকে অসুস্থতা কাটছে না। তখন নিজের প্রতি অবহেলা করার কারণে অনুতাপে ভুগবেন।

৮. বয়স খুব বেশি নয় দেখে অনেকেই বড় কোনো সুযোগ নিতে চান না। বিষয়টি আপনাকে অনেক পিছিয়ে দেবে। তাই সুযোগ আসামাত্রই এর সদ্ব্যবহার করুন।

৯. হয়তো যথেষ্ট অর্থ উপার্জন করছেন। কিন্তু আরো পরে সঞ্চয়ের পথে এগোবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ ভুলে মাশুল খুব দ্রুত দিতে হবে। প্রথম থেকেই কিছু কিছু সঞ্চয় করতে থাকুন।

১০. যখন সুযোগ পান, তখনই পর্যটক হয়ে যান। পৃথিবীতে এর চেয়ে ভালো কাজ আর নেই। অনেকেই সুযোগ থাকা সত্ত্বেও তা গ্রহণ করেন না। কিন্তু তিরিশের আগে যথেষ্ট ঘুরে বেড়ানো আপনাকে দিতে পারে পাহাড় সমান অভিজ্ঞতা। পরে এ কাজের সময়ই বের করতে পারবেন না।

১১. অন্যদের ভাবনার সঙ্গে মানিয়ে চলার চাপ আমাদের ওপর সব সময়ই থাকে। কিন্তু সব সময় অন্যের মনমতো চলার চেষ্টায় ব্যস্ত থাকলে এক সময় পস্তাতে হবে। তাই তিরিশের আগে এ কাজটি করবেন না।

Post A Comment: