আপনার নাক ডাকায় কি ব্যতিব্যস্ত আপনার সঙ্গী? আপনি নাসিকায় তীব্র তর্জন-গর্জন তুলে দিব্যি ঘুমোলেও, আপনার পাশের জন বিছানায় তিষ্ঠাতে পারেন না আপনারই জন্য। আর তা ষোলআনা জানলেও, একটু অস্বস্তিতে পড়া ছাড়া আপনার আর কিছুই করার থাকে না। 

control of the snore, নাক ডাকা নিয়ন্ত্রণে আনুন ব্যায়ামের মাধ্যমে, ব্যায়াম করলেই নিয়ন্ত্রণে আসবে নাক ডাকা।কারণ এ রোগের তো কোনো ওষুধ নেই! আছে, আছে। এ রোগেরও ওষুধ আছে। মুখ আর জিভে কয়েকটি ব্যায়াম নিয়মিত করলেই, বাগে আনতে পারবেন নাক ডাকার অভ্যাস।

আমেরিকার কেনটাকি কলেজ অফ মেডিসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক তিন মাস ধরে ৩৯ জনের ওপর একটি পরীক্ষা চালান, যাদের তীব্র নাক ডাকা অভ্যেস। এই পরীক্ষায় উঠে আসা তথ্যের ভিত্তিতে গবেষকদের দাবি, কয়েকটি ব্যায়াম করলেই নাক ডাকাকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় ৫৯%।

কীভাবে করতে হবে এই ব্যায়াম
১. জিভের ডগাটা মুখের ভেতর, উপরের দিকে লাগাতে হবে। এরপর জিভটাকে টানতে হবে পেছনের দিকে।

২. পুরো জিভটাকে মুখের ভেতর, উপরের দিকে চেপে ধরে রাখতে হবে।

৩. জিভের পেছনের অংশ দিয়ে মুখের নিচের দিকে চাপ দিতে হবে। সেই সময় জিভের ডগা ঠেকানো থাকবে মুখের ভেতরে নিচ বরাবর, সামনের দিকে অর্থাৎ জিভের ডগা সামনের দাঁতে লেগে থাকবে।

এভাবে কয়েকবার করে করতে পারলেই কেল্লা ফতে। নাক ডাকা অনেক পরিবারেই ডেকে এনেছে অশান্তি। সারাদিন খাটা-খাটনির পর, রাতের ঘুমে এমন অনাহূতের আবির্ভাবে সম্পর্কে ইতি টানার ঘটনাও ঘটেছে। তাই যাদের ঘুমোনোর সময় নাক ডাকে, তারা একদম দেরি না করে, শিগগিরই ট্রাই করে ফেলুন মার্কিন গবেষকদের এই নতুন টোটকা।- ওয়েবসাইট।

Post A Comment: