শুক্রবার অ্যাডিলেড ওভালে তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে। সবকিছু ঠিক থাকলে দুই দলে পাঁচজন সীমার নিজেদের শক্তিমত্তা প্রমাণে মাঠে নামবে। একজন সাবেক বাঁহাতি পেসার হিসেবে এই প্রজন্মের দারুণ প্রতিভাবান এইসব পেসারদের খেলা দেখতে মুখিয়ে আছেন পাকিস্তানের তারকা বোলার ওয়াসিম আকরাম। কিন্তু এই লড়াইয়ে তিনি ফেভারিট হিসেবে এগিয়ে রেখেছেন অস্ট্রেলিয়ান মিশেল স্টার্ককে। ইতোমধ্যেই পাঁচ ম্যাচে ১৬ উইকেট দখল করে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর তালিকায় শীর্ষস্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ান এই গতি তারকা। আর অ্যাডিলেডের উইকেট বিবেচনায় এখানে যে পেসারদের জ্বলে ওঠার দারুণ সম্ভাবনা রয়েছে তা সহজেই অনুমেয়। অসাধারণ পেস এবং বাউন্স দিয়ে প্রতিপক্ষের নয়জন বোলারকে ঘায়েল করেছেন অপর অসি পেসার মিশেল জনসন। আর পিঠের ইনজুরি কাটিয়ে গত ৪ মার্চ মাঠে ফেরা জেমস ফকনার তিন ম্যাচে নিয়েছেন তিন উইকেট। এই তুলনায় পাকিস্তানী পেসাররাও কোন অংশেই কম সফলতা পাননি। এই মুহূর্তে পাকিস্তানের সফলতম স্ট্রাইক বোলার ওয়াহাব রিয়াজ নিয়েছেন ১৪ উইকেট। আর তরুণ রাহাত আলীর সংগ্রহে রয়েছে ৭টি। শুক্রবারের ম্যাচের আগে আট উইকেট দখল করা মোহাম্মদ ইরফানও এই দুজনের সঙ্গী হতে পারতেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত কোমরের ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়েছেন পাকিস্তানের দীর্ঘদেহী এই বাঁহাতি পেসার। ১৯৯২ সালে পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ী দলের অন্যতম সদস্য ওয়াসিম আকরাম জানিয়েছেন তিনি এই ম্যাচে বাঁহাতিদের লড়াই দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন। ওয়াসিম আকরাম জানিয়েছেন গত কয়েক বছরে বাঁহাতি পেস বোলিং বিশ্ব ক্রিকেটে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। তবে তার কাছে সকলের তুলনায় স্টার্কই কিছুটা এগিয়ে। সে বেশ লম্বা এবং বল সুইং করাতে পারে, এ কারণেই সে এত সফলতা পাচ্ছে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এবারের আসরে এক উইকেটের পরাজয়ের নাটকীয় ম্যাচটিতে ২৫ বছর বয়সী স্টার্ক ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে মাত্র ২৮ রানে দখল করেছিলেন ৬ উইকেট। ছয় ম্যাচে ১৫ উইকেট দখল করা নিউজিল্যান্ডের বাঁহাতি মিডিয়াম ফাস্ট বোলার ট্রেন্ট বোল্টের প্রশংসা করে ওয়াসিম বলেছেন, সেও বেশ ভাল বোলার। বাসস

Post A Comment: