জামিন আবেদন নাকচ

রাজধানীর পল্টন থানায় নাশকতার তিন মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। একই সঙ্গে তদন্ত কর্মকর্তাকে চাইলে ২৩ মের মধ্যে মির্জা ফখরুলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করতে বলা হয়েছে। গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম অশোক কুমার দত্ত দুই পক্ষের বক্তব্য শুনে এ আদেশ দেন। এর আগে রিমান্ড ও জামিন শুনানির জন্য সকালে মির্জা ফখরুলকে কাশিমপুর কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। গত রবিবার মির্জা ফখরুলের আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেজবাহ পল্টন থানার তিন মামলায় জামিনের আবেদন করেন। অন্যদিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তারা পৃথক তিন মামলায় ৩০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত রিমান্ড ও জামিন শুনানির জন্য গতকাল দিন ধার্য করেন। নাশকতার তিন মামলা এ বছর বিএনপির হরতাল-অবরোধ চলাকালে পল্টন থানা পুলিশ দায়ের করেন। ফখরুলের আইনজীবী জয়নাল আবেদীন মেসবাহ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের বিরুদ্ধে ৮০টির মতো মামলা রয়েছে। এর মধ্যে চারটি বিচারের পর্যায়ে গেছে। উচ্চ আদালতে ন্যায় বিচার পেলে কোনো মামলাই টিকবে না বলে জানান তিনি। গত ৬ জানুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আটক করে পুলিশ। আটকের পর তাকে দুই মামলায় আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন। ২৭ জানুয়ারি পল্টন থানার গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় করা মামলায় তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। ৩ ফেব্রুয়ারি মতিঝিল থানার বিস্ফোরক আইনে আরেক মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। -নিজস্ব প্রতিবেদক

Post A Comment: