তৃতীয় লিঙ্গ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার পর এবার কর্মক্ষেত্রেও হিজড়াদের যুক্ত করার চিন্তাভাবনা করছে সরকার। সামাজিক নিরাপত্তার অংশ হিসেবে তাদের ট্রাফিক পুলিশে নিয়োগ দেওয়া যায় কিনা- তা ভেবে দেখার প্রস্তাব করেছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট থেকেই সামাজিক নিরাপত্তা খাতের অংশ হিসেবে হিজড়াদের পুনর্বাসনের বিষয়টিকে যুক্ত করা হতে পারে বলে জানা গেছে। গত মঙ্গলবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রমের এক পর্যালোচনা সভায় এ বিষয়টি আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে উপস্থিত সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী এ আলোচনার সূত্রপাত করেন বলে জানা গেছে। বৈঠকে চলতি ও আগামী বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা খাতের বরাদ্দ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকিসহ আরও কয়েকজন মন্ত্রী ও সচিব উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক সূত্র জানায়, আগামী বাজেটে সমাজে অবহেলিত হিজড়াদের জন্য বিশেষ সুবিধা দেওয়া হবে। তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী মূলধারায় আনার ঘোষণা থাকতে পারে অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতায়। বিশেষ করে তাদের ট্রাফিক পুলিশে নিয়োগ করা যায় কিনা-তা নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়ে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশনাও দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। হিজড়াদের মধ্যে যারা শিক্ষিত, শারীরিক যোগ্যতা ভালো, পারিবারিক পরিচয় রয়েছে প্রথমদিকে এদের বাছাই করে চাকরিতে অন্তর্ভুক্তির ব্যাপারে মোটামুটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ জন্য হিজড়ার সংখ্যা নির্ণয়ে সারা দেশে জরিপও করা হতে পারে। আর যারা একেবারেই অশিক্ষিত তাদের শিক্ষার আওতায় কীভাবে আনা যায় সে বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় বলছে, হিজড়াদের পরিসংখ্যান সংক্রান্ত কোনো তথ্য বর্তমানে সরকারের হাতে নেই। কেননা সর্বশেষ আদমশুমারির সময় তৃতীয় লিঙ্গ বলতে কিছু ছিল না। ফলে তারা সে সময় বাদ পড়েন। আওয়ামী লীগ সরকার প্রথম মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর হিজড়াদের তৃতীয় লিঙ্গ হিসেবে স্বীকৃত দেয়। এরপর আর কোনো আদমশুমারি হয়নি। তবে জাতীয় এইডস ও এসটিডি কর্মসূচির তথ্যানুযায়ী রাজধানী ঢাকায় হিজড়ার সংখ্যা ১২ থেকে ১৭ হাজার। আর বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার (এনজিও) তথ্যানুযায়ী, সারা দেশে এর সংখ্যা ৩০ থেকে ৫০ হাজার। শুধু ঢাকা শহরেই হিজড়ার সংখ্যা ১০ হাজারের ওপর। এদিকে সর্বশেষ ২০১৩ সালে সমাজসেবা অধিদফতর একটি জরিপ পরিচালনা করেছিল। সে হিসাব অনুযায়ী সারা দেশে হিজড়ার সংখ্যা ৯ হাজার ২৮৫ জন। তবে এ সংখ্যা প্রতিনিয়তই বাড়ছে বলে জানা গেছে। -

Post A Comment: