rojay-toker-jotne-panir-varsamo-bojay-rakhun 

রমজানে সারাদিন রোজা রেখে ত্বক কিছুটা প্রাণহীন ও নিস্তেজ হয়ে পড়ে। পানির অভাবে ত্বকের আর্দ্রতা কমে যায়। এ বছর রমজান মাসে কাঠফাটা রোদ আবার ঝুম বৃষ্টি তো আছেই। তার ওপর রোজা রেখে কাজের চাপের প্রভাব ত্বকের ওপর পড়ে। কিন্তু আপনার একটু সতর্কতা ত্বককে রাখতে পারে সুন্দর আর ঈদের দিনটির জন্য সতেজ। সিয়াম সাধনার পাশাপাশি এ সময় প্রয়োজন ত্বকের বিশেষ যত্নের। আপনাদের জন্য তাই রইলো রমজানে ত্বকের যত্নের বিশেষ কিছু টিপস।


বককে ডিহাইড্রেশন থেকে বাঁচাতে ইফতার এবং সেহরির মাঝে অন্তত ৮ গ্লাস পানি খাওয়ার অভ্যাস করুন। শুধু পানি খেতে ভালো না লাগলে ফলের রস খেতে পারেন। তবে কখনো অতিরিক্ত চিনিযুক্ত ড্রিংক খাবেন না, কারণ চিনিজাতীয় খাবার কোলাজেন নষ্ট করে ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ ফেলতে পারে।

পানি শূন্যতার কারণে এ সময় ত্বকের আর্দ্রতা কমে গিয়ে প্রাণহীন ও শুষ্ক হয়ে পড়ে। ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম বা লোশন ব্যবহারের মাধ্যমে ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে পারেন।

যাদের ত্বক সাধারণ বা তৈলাক্ত তারা ওয়াটার বেইজড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। আর যাদের ত্বক শুষ্ক তারা ওয়াক্স বা ইমোলিয়েন্ট সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। এগুলো ত্বকের গভীরে আর্দ্রতা জুগিয়ে ত্বক ফেটে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করবে।

রমজান মাসে সব রকমের টোনার জাতীয় প্রসাধন এড়িয়ে চলা উচিত। এই ধরনের প্রসাধনী বেশি ব্যবহারে ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে যায়।

এসময় ঠোঁট অনেক বেশি ফেটে যায়। রাতে ঘুমাবার আগে ঠোঁটে ভালো করে ভ্যাসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলি দিয়ে ঘুমাতে যাবেন। বেশি শুষ্ক ঠোঁটের যত্নে হালকা গরম নারিকেল তেল ম্যাসাজ করে লাগান।
 

সিনেমার শুটিং না থাকলে সাধারণত বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ফটোশ্যুট ও স্টেজ শো করেন আরিফিন শুভ। পত্রিকা কিংবা ম্যাগাজিনের খুব একটা শ্যুট করেন না। বহুদিন পর লাইফস্টাইল ম্যাগাজিন ‘ক্যানভাস’র মডেল হলেন তিনি। সে ফটোশ্যুটের ছবিগুলো নিয়ে অনলাইনে শুরু হয়েছে আলোচনা।


ক্যাজুয়াল ও ফরমাল দুই লুকের পাশাপাশি তাকে দেখা গেছে ক্যারিবিয়ান লুকে। একটি ছবিতে তাকে লম্বা চুলে বেণী করা এবং মুখে ক্ষতসহ দেখা গেছে। এর সবই পরীক্ষামূলকভাবে করা হয়েছে বলে জানা গেছে। নুজহাত খান রয়েছেন পুরো স্টাইলিংয়ের পিছনে।

বেশকিছু সমালোচনা থাকলেও শুভর ভক্তরা তার এ লুক দারুণ পছন্দ করেছে। তারা বলছে, আরিফিন শুভ এ সময়ের স্টাইল আইকন। সে জানে কিভাবে একটা ট্রেন্ড তৈরি করতে হয়।

‘ক্যানভাস’ ম্যাগাজিনে প্রকাশিত শুভ তার ফ্যাশন নিয়ে কথা বলেন। সেখানে তিনি জানান, নাটক-সিনেমায় নানারকম পোশাক পরতে হলেও ডেনিম ও টি-শার্টে স্বাছন্দ্য তার। প্রিয় রঙ কালো ও নীল। যেকোন ব্র্যান্ডের সবচেয়ে ভালো এবং আরামদায়ক পোশাকটি তার প্রিয়।

আরিফিন শুভ বর্তমানে কলকাতায় অবস্থান করছেন রঞ্জন ঘোষ পরিচালিত ‘আহা রে’র শুটিংয়ে। সিনেমাটিতে তার বিপরীতে আছেন ঋতুপর্ণা ঘোষ।
 

ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর ব্যঙ্গচিত্র (কার্টুন) আঁকায় জার্মানির শীর্ষস্থানীয় একটি পত্রিকার কার্টুনিস্টকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এর মাধ্যমে অ্যান্টি-সেমিটিক দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করা হয়েছে বলে দিয়েতের হানিটচ নামক ওই কার্টুনিস্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। অথচ এই কার্টুনিস্টই তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোয়ানের ব্যঙ্গচিত্র এঁকেছিলেন। কিন্তু তখন তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনা হয়নি।


ব্যঙ্গচিত্রে দেখানো হয়েছে, নেতানিয়াহু হাতে একটি ক্ষেপণাস্ত্র বহন করছেন। আর তার পরনে রয়েছে ইসরাইলি গায়ক নেত্তা বারজিলাইয়ের পোশাক, যিনি এবার ইউরোভিশন প্রতিযোগিতা জিতেছেন। পাশাপাশি লেখা রয়েছে- এটি (প্রতিযোগিতা) আগামী বছর জেরুজালেমে হবে।

ব্যঙ্গচিত্রটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও জার্মানির অন্যান্য মিডিয়া আউটলেটে ভাইরাল হয় বলে জানিয়েছে তুর্কি গণমাধ্যম আনাদলু।

সুদ্দুটচি জেইতুং নামক ওই পত্রিকার প্রধান সম্পাদক উল্ফগাং ক্র্যাচ এ ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু ওই কার্টুনিস্ট তা করেননি।

বরং স্থানীয় গণমাধ্যমকে ৮৫ বছর বয়সী ওই কার্টুনিস্ট বলেছেন, ইউরোভিশন প্রতিযোগিতা দিয়ে তিনি নেতানিয়াহুর শোসনের বিষয়টির সমালোচনা করতে চেয়েছেন। ইউরোভিশন প্রতিযোগিতার বিজয়কে তিনি (নেতানিয়াহু) নিজের স্বার্থে ব্যবহার করেছেন এবং গায়কের বিজয়কে তিনি অসম্মান করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন ওই কার্টুনিস্ট।

তিনি বলেন, কোনো কিছু আঁকার জন্য কোনো কার্টুনিস্টকে বরখাস্ত করা সাধারণ কোনো নিয়মের মধ্যে পড়ে না। আপনি তাকে বকতে কিংবা সতর্ক করতে পারেন। কিন্তু বরখাস্ত করা কোনো ভালো লক্ষণ নয়।

উল্লেখ্য, এর আগে হানিটচ তুর্কি প্রেসিডেন্টের সমালোচনা করে এমনকি অপমানকর ব্যঙ্গচিত আঁকেন। বাক-স্বাধীনতার বিষয় নিয়ে এরদোয়ানের সমালোচনা করে আঁকা ওই কার্টুনটি এই পত্রিকাতেই ছাপা হয়েছিল। কিন্তু তখন তাকে কিছুই বলা হয়নি।